২০২২ সালে দেশের বাজারে আসন্ন নতুন ৫টি মোটরসাইকেল

২০২২ সালে দেশের বাজারে আসন্ন নতুন ৫টি মোটরসাইকেল

আপনি কি বাংলাদেশে আসন্ন মোটরসাইকেলগুলোর মধ্যে কোনোটি কিনতে আগ্রহী? বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় মার্কেটপ্লেস হওয়ার দরুন বিক্রয় ডট কম-এর পক্ষ থেকে ২০২২ সালে দেশের বাজারে আসন্ন মোটরসাইকেল সম্পর্কিত আপনার সমস্ত কৌতূহল আমরা আজকের লেখার মাধ্যমে পূরণ করবো।

মোটরসাইকেল কেনার ক্ষেত্রে বিক্রয় ডট কম-এ ব্র্যান্ড, মডেল, কত কিলোমিটার চলেছে এবং অবস্থানের মতো কিছু গুরুত্বপূর্ণ ফিল্টার অপশন রয়েছে যার মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা সহজেই তাদের পছন্দের মোটরসাইকেলটি এখান থেকে খুঁজে নিতে পারে।

আপনি যদি বাংলাদেশে আসন্ন মোটরসাইকেলগুলোর মধ্যে কোনো একটি কেনার পরিকল্পনা করে থাকেন এবং বিভিন্ন দোকান বা শো-রুমে খোঁজ নিয়ে থাকেন, তাহলে আপনি আজকের লেখায় আসন্ন এই মোটরসাইকেলগুলোর প্রত্যাশিত মূল্য সহ সমস্ত ধরণের প্রয়োজনীয় তথ্য জেনে নিতে পারবেন।

২০২২ সালে দেশের বাজারে দেখা মিলবে যেসমস্ত নতুন মোটরসাইকেলের

নতুন এবং সেকেন্ড-হ্যান্ড মোটরসাইকেলের জন্য বাংলাদেশ একটি বৃহত্তম টু-হুইলার মার্কেট। যারা পছন্দের বাইক লঞ্চের জন্য যারা অপেক্ষা করছেন সেইসব ক্রেতাদের জন্য বিভ্রান্তিকর হতে পারে। তাই বাইক কেনার ক্ষেত্রে সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার সুবিধার্থে নতুন বছরে আসন্ন কিছু মোটরসাইকেলের তালিকা এখানে তুলে ধরা হয়েছে।

মডেল সম্ভাব্য দাম (টাকায়) 
ইয়ামাহা আর১৫এম ৫,৬৫,০০০
বাজাজ পালসার এনএস১৬০ এফআই বিএস সিক্স ২,৬২,৫০০
হোন্ডা এক্সআর ১৫০এল ৫,০০,০০০
সুজুকি এভেনিস ১,৯০,০০০
হিরো মেস্ট্রো এজ ১২৫ ১,৪৭,৯৯০
২০২২ সালে আসন্ন কিছু মোটরসাইকেল

১. ইয়ামাহা আর১৫এম

ইয়ামাহা আর১৫এম
ইয়ামাহা আর১৫এম

ইয়ামাহা আর১৫এম-এর ফিচারঃ ইয়ামাহা আর১৫এম একটি ডুয়াল-চ্যানেল এবিএস (অ্যান্টি-লক ব্রেকিং সিস্টেম) সম্বলিত স্পোর্টস বাইক। বাড়তি নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বাইকটিতে দেওয়া হয়েছে একটি স্লিপার ক্লাচ সিস্টেম। এছাড়াও বাইকটির রাইডারদের আরামের কথা বিবেচনা করে ইয়ামাহা বাইকটিতে একটি ইঞ্জিন কিল সুইচ এবং একটি স্প্লিট সিটিং অপশন দিয়েছে।

ইয়ামাহা আর১৫এম-এর কিছু বৈশিষ্ট্যঃ

বাইকের ধরণ স্পোর্টস
ইঞ্জিন সিসি ১৫৫ সিসি
সর্বোচ্চ ক্ষমতা ১৮.৪ এইচপি @ ১০০০০ আর পি এম
সর্বোচ্চ টর্ক ১৪.২ এনএম @ ৭৫০০ আর পি এম
গিয়ার সংখ্যা
ওজন ১৪২ কেজি
ফুয়েল ট্যাংক ধারণ ক্ষমতা ১১ লিটার
ইয়ামাহা আর১৫এম-এর কিছু বৈশিষ্ট্য

বাংলাদেশে ইয়ামাহা আর১৫এম-এর দামঃ বাংলাদেশের বাজারে ইয়ামাহা আর১৫এম-এর সম্ভাব্য দাম প্রায় ৫,৬৫,০০০ টাকা।

২. বাজাজ পালসার এনএস১৬০ এফআই বিএস সিক্স

বাজাজ পালসার এনএস১৬০ এফআই বিএস সিক্স
বাজাজ পালসার এনএস১৬০ এফআই বিএস সিক্স

বাজাজ পালসার এনএস১৬০ এফআই বিএস সিক্স-এর ফিচারঃ রাইডিং অভিজ্ঞতার জন্য ২০২২ সালে নতুন মোটরসাইকেল খুঁজছেন? অত্যন্ত জনপ্রিয় এই নেকেড স্পোর্টস বাজাজ মোটরসাইকেলটিতে রয়েছে সিঙ্গেল-চ্যানেল এবিএস (অ্যান্টি-লক ব্রেকিং সিস্টেম)। পাশাপাশি ব্যবহারকারীদের আরামের কথা মাথায় রেখে বাজাজ পালসার এনএস১৬০ এফআই বিএস সিক্স-এ দেওয়া হয়েছে স্প্লিট সিট এবং ইঞ্জিন কিল সুইচের মত কিছু আকর্ষণীয় বৈশিষ্ট্য।

বাজাজ পালসার এনএস১৬০ এফআই বিএস সিক্স-এর কিছু বৈশিষ্ট্যঃ 

বাইকের ধরণ নেকেড স্পোর্টস
ইঞ্জিন সিসি ১৬০.৩ সিসি
সর্বোচ্চ ক্ষমতা ১৭.২ এইচপি @ ৯০০০ আর পি এম
সর্বোচ্চ টর্ক ১৪.৬ এনএম @ ৭২৫০ আর পি এম
গিয়ার সংখ্যা
ওজন ১৫১ কেজি
ফুয়েল ট্যাংক ধারণ ক্ষমতা ১২ লিটার
বাজাজ পালসার এনএস১৬০ এফআই বিএস সিক্স-এর কিছু বৈশিষ্ট্য

বাংলাদেশে বাজাজ পালসার এনএস১৬০ এফআই বিএস সিক্স-এর দামঃ বাংলাদেশের বাজারে বাজাজ পালসার এনএস১৬০ এফআই বিএস সিক্স-এর সম্ভাব্য দাম প্রায় ২,৬২,৫০০ টাকা।

৩. হোন্ডা এক্সআর ১৫০এল

হোন্ডা এক্সআর ১৫০এল

হোন্ডা এক্সআর ১৫০এল-এর ফিচারঃ যারা অফ-রোড রাইডিং উপভোগ করতে ইচ্ছুক তাদের জন্য হোন্ডা-এর এক্সআর ১৫০এল বাইকটি একটি দুর্দান্ত পছন্দ হতে পারে। দীর্ঘ সময়ের হাইকিং অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে এই মাউন্টেন বাইকটিতে দেওয়া হয়েছে একটি ৫-স্পিড গিয়ারবক্স এবং ১২-লিটার ফুয়েল ট্যাংক।

হোন্ডা এক্সআর ১৫০এল-এর কিছু বৈশিষ্ট্যঃ

বাইকের ধরণ মাউন্টেইন
ইঞ্জিন সিসি ১৫০ সিসি
সর্বোচ্চ ক্ষমতা ১২.১৪ এইচপি @ ৭৭৫০ আর পি এম
সর্বোচ্চ টর্ক ১২.৫ এনএম @ ৬০০০ আর পি এম
গিয়ার সংখ্যা
ওজন ১২৯ কেজি
ফুয়েল ট্যাংক ধারণ ক্ষমতা ১২ লিটার
হোন্ডা এক্সআর ১৫০এল-এর কিছু বৈশিষ্ট্য

বাংলাদেশে হোন্ডা এক্সআর ১৫০এল-এর দামঃ বাংলাদেশের বাজারে হোন্ডা এক্সআর ১৫০এল-এর সম্ভাব্য দাম প্রায় ৫,০০,০০০ টাকা।

৪. সুজুকি এভেনিস

সুজুকি এভেনিস
সুজুকি এভেনিস

সুজুকি এভেনিস-এর ফিচারঃ সুজুকি বরাবরই বাজেট স্কুটার অফার করে থাকে যা ব্যবহারকারীদের সকল প্রয়োজনীয়তা পূরণ করতে সক্ষম, এবং এভেনিস এই তালিকার নতুন সংযোজন। ব্যবহারকারীদের পর্যাপ্ত আরাম নিশ্চিত করার জন্য এই স্কুটারটিতে, ইঞ্জিন কিল সুইচ, চার্জিং সকেট এবং শাটার লক সিস্টেমের মতো দারুণ কিছু বৈশিষ্ট্য রয়েছে।

সুজুকি এভেনিস-এর কিছু বৈশিষ্ট্যঃ

বাইকের ধরণ স্কুটার
ইঞ্জিন সিসি ১২৪.৩ সিসি
সর্বোচ্চ ক্ষমতা ৮.৭০ এইচপি @ ৬৭৫০ আর পি এম
সর্বোচ্চ টর্ক ১০.০ এনএম @ ৫৫০০ আর পি এম
গিয়ার সংখ্যা সিভিটি (অটোমেটিক)
ওজন ১০৬ কেজি
ফুয়েল ট্যাংক ধারণ ক্ষমতা ৫.২ লিটার
সুজুকি এভেনিস-এর কিছু বৈশিষ্ট্য

বাংলাদেশে সুজুকি এভেনিস-এর দামঃ বাংলাদেশের বাজারে সুজুকি এভেনিস-এর সম্ভাব্য দাম প্রায় ১,৯০,০০০ টাকা।

৫. হিরো মেস্ট্রো এজ ১২৫

হিরো মেস্ট্রো এজ ১২৫

হিরো মেস্ট্রো এজ ১২৫-এর ফিচারঃ আপনি যদি স্কুটারের ব্যাপারে আগ্রহী হন এবং স্বল্প বাজেটের মধ্যে কিছু খুঁজে থাকেন, তাহলে হিরো মেস্ট্রো এজ হতে পারে আপনার জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত স্কুটার। হিরো মোটোকর্প-এর এই স্কুটারের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্যগুলোর মধ্যে রয়েছে একটি ডুয়াল-টেক্সচারযুক্ত সিট, একটি স্ট্যান্ডার্ড চার্জিং সকেট এবং একটি আন্ডারবোন টাইপ হ্যান্ডেল।

হিরো মেস্ট্রো এজ ১২৫-এর কিছু বৈশিষ্ট্যঃ

বাইকের ধরণ স্কুটার
ইঞ্জিন সিসি ১২৪.৬ সিসি
সর্বোচ্চ ক্ষমতা ৯ এইচপি @ ৭০০০ আর পি এম
সর্বোচ্চ টর্ক ১০.৪ এনএম @ ৫৫০০ আর পি এম
গিয়ার সংখ্যা অটোমেটিক
ওজন ১১১ কেজি
ফুয়েল ট্যাংক ধারণ ক্ষমতা ৫ লিটার
রো মেস্ট্রো এজ ১২৫-এর কিছু বৈশিষ্ট্য

বাংলাদেশে হিরো মেস্ট্রো এজ ১২৫-এর দামঃ বাংলাদেশের বাজারে হিরো মেস্ট্রো এজ ১২৫-এর সম্ভাব্য দাম প্রায় ১,৪৭,৯০০ টাকা।

শেষ কথা

সর্বোপরি ২০২২ সালে নতুন মোটরসাইকেল কেনা অনেক বাইক প্রেমীদের জন্য একটি স্বপ্নের মত। আমরা আশাবাদী আমাদের আজকের এই লেখাটি বাংলাদেশের আগামী দিনের বাইকারদের সাহায্য করতে সক্ষম হবে।

আজকের দিনে মোটরসাইকেল চালানো এখন পুরুষ এবং মহিলা উভয়ের জন্য একটি সাধারণ প্রবণতা এবং এই কথাটি মাথায় রেখেই সমস্ত ধরণের প্রয়োজনীয়তা পূরণের জন্য আমাদের তালিকায় স্কুটার রেখেছি। নিঃসন্দেহে এই তালিকার প্রতিটি বাইকই অনন্য, তবে ব্র্যান্ড এবং আউটলুকের ভিত্তিতে পছন্দের ব্যাপারটি অত্যন্ত বিষয়ভিত্তিক।

লেটেস্ট মোটরসাইকেল ট্রেন্ড, খবর এবং দামের সাথে নিজেকে আপডেট রাখুন বিক্রয়-এর সাথে।

হ্যাপি রাইডিং!  



Leave a comment

Your email address will not be published.