Honda CBR 150 R বনাম Yamaha R15 V 3: দাম বৈশিষ্ট্য এবং পার্থক্য  

Honda CBR 150 R বনাম Yamaha R15 V 3: দাম বৈশিষ্ট্য এবং পার্থক্য  

১৫০ সিসির সেগমেন্ট এর বাইকগুলোর মধ্যে Honda CBR 150 R এবং Yamaha R 15 V3 একে অপরের প্রতিযোগী। ২০১৮ সালে ইয়ামাহা তার এই মডেলটি বাজারে আনে এবং তার কিছুদিন পরেই বাজারে আসে হোন্ডার সিবিআর ১৫০ আর এর বাইকটি। ধারণা করা হয়েছিল হোন্ডা এক্ষেত্রে তার ঐতিহ্য ধরে রেখে বাজারে প্রতিযোগিতা নিয়ে আসবে। 

Yamaha’র এই বাইকটি বাংলাদেশে বাজার মূল্য প্রায় ৫,০০,০০০ টাকা অন্যদিকে Honda CBR 150 R  এর বাজার মূল্য ধরা হয়েছে ৫,৫০,০০০ টাকা। হোন্ডা তার  কোয়ার্টার লিটার এর CBR 250 R হতে অনুপ্রাণিত বাইকটি এনেছে তার বাজার টিকিয়ে রাখার জন্য।

নতুন  Honda CBR 150 R এবং Yamaha R 15 V3  এর তুলনা 

ডিজাইন এবং স্টাইল

Honda CBR 150 R বাইকটি অনেক রোড ফ্রেন্ডলি যদিও ডিজাইন এবং স্টাইল সেকশনটি ব্যক্তিগত চাহিদার উপর নির্ভর করছে। রেস ট্র্যাকে তার সুনাম ধরে রাখার জন্য Yamaha R 15 V3  তার  R সিরিজ থেকে অনুপ্রাণিত ডিজাইন তৈরি করেছে।  Honda CBR 150 R বাইকটি লাল, কালো, সাদা এবং কমলা রং এর মোটো জিপি এডিশন এ পাওয়া যাচ্ছে অন্যদিকে  Yamaha R 15 V3 পাওয়া যাচ্ছে রেসিং ব্লু এবং থাণ্ডার গ্রে রং এ। 

কারিগরি স্পেসিফিকেশন এর তুলনা 

Yamaha R 15 V3Honda CBR 150 R
স্থানচ্যুতি১৫৫.১ সিসি১৪৯.১৬ সিসি 
ট্রান্সমিশন৬ স্পিড৬ স্পিড
সিলিন্ডারের সংখ্যা১ সিলিন্ডার ১ সিলিন্ডার 
সর্বোচ্চ ক্ষমতা ১৯.৩ এইচ পি@ ১০,০০০ আর পি এম ১৭.১ এইচ পি @ ৯,০০০ আর পি এম
সর্বোচ্চ টর্ক ১৫ এন এম @ ৮,৫০০ আর পি এম ১৪.৪ এন এম @৭,০০০ আর পি এম
ফুয়েল সাপ্লাই ফুয়েল ইঞ্জেকশন ফুয়েল ইঞ্জেকশন 
ইঞ্জিন কুলিং লিকুইড কুলডলিকুইড কুলড
টপ স্পিড১৪৪ কিলোমিটার/ ঘণ্টা১৩৫ কিলোমিটার/ ঘণ্টা
মাইলেজ ৩৫-৪৫ কিলোমিটার/ লিটার ৩৫-৪৫ কিলোমিটার/ লিটার 

ইঞ্জিন এবং পারফর্মেন্স 

Honda CBR 150 R  এর সর্বশেষ ভার্সনটি Yamaha R 15 V 2 এর চাইতে শক্তিশালী ছিল কিন্তু এই মডেলটির পাওয়ার  Yamaha R 15 V 3 এর চাইতে কিছুটা কম।  Yamaha R 15 V 3  বাইকটিতে সর্বোচ্চ ক্ষমতা পাবেন ১৯.৩ এইচ পি @ ১০,০০০ আরপিএম এবং টর্ক থাকছে ১৫ এন এম @৮,৫০০ আর পি এম। অন্যদিকে Honda CBR 150 R এর ইঞ্জিনের ক্ষমতা ১৭.১ এইচ পি @ ৯,০০০ আর পি এম এবং টর্ক পাবেন ১৪.৪ এন এম @৭,০০০ আরপিএম। ইয়ামাহার  R 15 V 3 এর ১৩৯ কেজি ওজনের বিপরিতে হোন্ডার বাইকটির ওজন অবশ্য ৪ কেজি কম। সব মিলিয়ে রাস্তায়  R 15 V 3 কে টেক্কা দিতে হলে হোন্ডার রাইডারকে অভিজ্ঞ হতে হবে।

Yamaha R 15 V 3Honda CBR 150 R
দৈর্ঘ্য ১৯৯০ মিলিমিটার১৯৮৩ মিলিমিটার
প্রস্থ ৭২৫ মিলিমিটার৬৯৪ মিলিমিটার
উচ্চতা ১১৩৫ মিলিমিটার ১০৩৮ মিলিমিটার 
হুইল বেইস ১৩২৫ মিলিমিটার ১৩১১ মিলিমিটার 
গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স১৭০ মিলিমিটার ১৬৬ মিলিমিটার 
সিটের উচ্চতা ৮১৫ মিলিমিটার ৭৮৭ মিলিমিটার 
মোট ওজন ১৩৯ কেজি ১৩৫ কেজি 
জ্বালানি ধারণ ক্ষমতা ১১ লিটার ১২ লিটার 

যন্ত্রাংশের তুলনা

Yamaha R 15 V 3 তে যেমন পাচ্ছেন  এল ই ডি লাইট, এবিএস ছাড়া টেলিস্কোপিক সাস্পেনশন  Honda CBR 150 R এও তাই পাবেন। Yamaha R 15 V 3 তে অপেক্ষাকৃত বড় ডিস্ক ব্রেক আছে । Honda CBR 150 R এর সিটের উচ্চতা অপেক্ষাকৃত কম হওয়ার কারণে বাংলাদেশের গড় উচ্চতার মানুষ সহজেই বাইকটি চালাতে পারবেন। বাইকে বসে মাটিতে পা ছোঁয়াতে বেগ পেতে হবে না আশা করি। 

ইন্সট্রুমেন্ট কনসোল  

Yamaha R 15 V 3 এর কনসোল এ পাচ্ছেন সাদা ব্যাক লিটের ডিসপ্লের সাথে গিয়ার ইনডিকেটর, ওডোমিটার, স্পিডোমিটার সহ বেশ কিছু অপশন। একই ধরণের কনসোল থাকছে  Honda CBR 150 R এও শুধু ইনডিকেটরগুলোর পজিশন একটু আলাদা এবং নিল রং এর ব্যাক লিট ডিসপ্লে।

চাকা এবং টায়ার 

Yamaha R 15 V 3Honda CBR 150 R 
ফ্রন্ট টায়ার ১০০/৮০-১৭ ১০০/৮০-১৭ 
রিয়ার টায়ার১৪০/৭০-১৭ ১৩০/৭০-১৭  
ফ্রন্ট হুইল ১৭ ইঞ্চি ১৭ ইঞ্চি 
রিয়ার হুইল  ১৭ ইঞ্চি ১৭ ইঞ্চি 

ব্রেক এবং সাস্পেনশন 

Yamaha R 15 V 3Honda CBR 150 R 
ফ্রন্ট ব্রেক ২৮২ মিলিমিটার ডিস্ক ব্রেক ২৭৬ মিলিমিটার ডিস্ক ব্রেক 
রিয়ার ব্রেক ২২০ মিলিমিটার ডিস্ক ব্রেক ২২০ মিলিমিটার ডিস্ক ব্রেক 
ফ্রন্ট সাস্পেনশন টেলি স্কোপিক ফর্ক টেলি স্কোপিক ফর্ক 
রিয়ার সাস্পেনশন মনো শক মনো শক 
এবিএস এবিএস নেই এবিএস নেই 

মুল্যায়ন 

দাম এবং অন্যান্য দিক বিবেচনায় Honda CBR 150 R এর চাইতে ভাল। যারা রেস ট্র্যাক এর বাইক পছন্দ করেন তাদের জন্য Yamaha R 15 V 3 সেরা অন্যদিকে নিত্যদিনের চলাচলের Honda CBR 150 R  সুবিধার জন্য হতে পারে আপনার জন্য ভাল । ইঞ্জিনের সক্ষমতা এবং দামের বিচার করলে Honda CBR 150 R এর চাইতে Yamaha R 15 V 3 আপনার জন্য উপযুক্ত হতে পারে। 

Similar Advices