কিভাবে একটি মোটরসাইকেলে গিয়ার শিফট করবেন: ৫ টি সহজ ধাপ

30 Oct, 2023   
কিভাবে একটি মোটরসাইকেলে গিয়ার শিফট করবেন: ৫ টি সহজ ধাপ

মোটরসাইকেল রাইডের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রসেসগুলোর মাঝে একটি হচ্ছে গিয়ার শিফট করা। প্রথম প্রথম গিয়ার শিফট করা বেশ চ্যালেঞ্জিং মনে হলেও আসলে এটি বেশ সহজ একটি প্রসেস। তবে মোটরসাইকেল ভেদে গিয়ার শিফট করার ধরণ ভিন্ন হতে পারে। আপনার সুবিধার্থে আমরা ম্যানুয়াল ও সেমি-অটোমেটিক, উভয় ধরণের ট্রান্সমিশনেরই গিয়ার শিফটিং আজ ব্যাখ্যা করবো। উভয় ক্ষেত্রেই ৫টি করে সহজ ধাপের মাধ্যমে আপনি মোটরসাইকেল গিয়ার শিফট এর আদ্যোপান্ত সম্পর্কে জেনে যাবেন। 

ম্যানুয়াল ট্রান্সমিশনে গিয়ার শিফট 

নাম থেকে বোঝা যাচ্ছে যে এই ট্রান্সমিশন সিস্টেমে রাইডারকে নিজে থেকে মোটরসাইকেল গিয়ার আপশিফট বা মোটরসাইকেল গিয়ার ডাউনশিফট করতে হবে। 

১। ক্লাচ, থ্রোটল ও গিয়ার শিফটারের সাথে পরিচিত হয়ে নিন। 

ক্লাচ সাধারণত বামপাশের হ্যান্ডগ্রিপের সামনে থাকে। ক্লাচের মাধ্যমে ইঞ্জিন থেকে ট্রান্সমিশনে টর্ক ট্রান্সফার করা হয়। আর থ্রোটল থাকে ডানপাশের হ্যান্ডগ্রিপে। থ্রোটল রোল করার মাধ্যমে ইঞ্জিনের আরপিএম বৃদ্ধি করা হয়, এতে করে ইঞ্জিনের স্টলিং রোধ করা হয়। আর গিয়ার শিফটার হচ্ছে বামপাশের ফুট প্যাডেলের সামনে থাকা একটি বার। এর মাধ্যমে এক গিয়ার থেকে অন্য গিয়ারে শিফট করা হয়। আপনি চাইলে এগুলো প্র্যাক্টিস করতে পারেন – 

  • প্রথমে ক্লাচ লিভার টেনে ধরে, তারপর আস্তে আস্তে ছেড়ে দিন। 
  • মোটরসাইকেলের গতি বৃদ্ধি করতে থ্রোটল পেছনের দিকে ঘুড়ান। 
  • মোটরসাইকেলের গতি হ্রাস করতে থ্রোটোল সামনের দিকে ঘুড়ান। 
  • গিয়ার শিফটারে পা রেখে একবার প্রেস করুন, এতে মোটরসাইকেল প্রথম গিয়ারে চলে আসবে। গিয়ার শিফটার নিচের দিকে প্রেস করার মাধ্যমে মোটরসাইকেল আরো নিচের গিয়ারে চলে যায়। 
  • উপরের গিয়ারে যেতে গিয়ার শিফটার পা দিয়ে উপরের দিকে টান দিন। ম্যানুয়াল মোটরসাইকেলের গিয়ার প্যাটার্ন সাধারণত, একবার ডাউন এবং ৪ অথবা ৫ বার আপ হয়ে থাকে। 

২। মোটরবাইক স্টার্ট করুন। 

প্রথমে ক্লাচ টেনে ধরে এবং তারপর স্টার্ট বাটনে প্রেস করে মোটরবাইক স্টার্ট করুন। মিটার কনসোলে একটি সবুজ “N” লাইট দেখতে পেলে বুঝে যাবেন যে আপনি নিউট্রাল গিয়ারে রয়েছেন। 

৩। প্রথম গিয়ারে শিফট করুন। 

এখন আপনাকে তিনটি কাজ একসাথে করতে হবে – প্রথমে, থ্রোটল সামনের দিকে ঘুড়ান এবং ধরে থাকুন, ক্লাচ টেনে ধরুন এবং গিয়ার শিফটার একবার নিচের দিকে প্রেস করুন। এখন আস্তে আস্তে থ্রোটল আর ক্লাচ ছাড়তে থাকুন, মোটরসাইকেল খুব ধীর গতিতে চলতে শুরু করবে। এবার আরো কিছুটা থ্রোটল ছেড়ে দিয়ে ক্লাচ পুরোপুরি ছেড়ে দিন। 

তাড়াহুড়ো করে সম্পূর্ণ ক্লাচ একসাথে ছেড়ে দিবেন না। মোটরসাইকেল আস্তে আস্তে চলতে শুরু করলে তার সাথে ধীরে ধীরে থ্রোটল আর ক্লাচ রিলিজ করুন। 

৪। পরবর্তী গিয়ারগুলোতে শিফট করুন। 

যখন আপনি পরবর্তী গিয়ারগুলোতে শিফট করার জন্য যথেষ্ট স্পিড অর্জন করে ফেলেছেন, আস্তে আস্তে থ্রোটল পেছনের দিকে ঘুড়ান এবং ক্লাচ আস্তে আস্তে টেনে ধরুন। তারপর গিয়ার শিফটারের নিচে পা দিয়ে তা উপরের দিকে টান দিন। গিয়ার শিফটার প্রতিবার উপরের দিকে টেনে ধরার মাধ্যমে আপনি একটি একটি করে পরবর্তী গিয়ারে যেতে পারবেন। 

যখন আপনি অভিজ্ঞ হয়ে যাবেন, তখন আর আপনাকে ক্লাচ টেনে ধরতে হবে না। যাস্ট থ্রোটল পেছনের দিকে ঘুড়ানো আর গিয়ার শিফটার উপরের দিকে প্রেস করার মাধ্যমেই আপনি পরবর্তী গিয়ারগুলোতে যেতে পারবেন। এর মাধ্যমে আপনি আরো দ্রুত গিয়ার শিফট করতে পারবেন এবং আপনার ক্লাচ প্লেট আরো দীর্ঘমেয়াদী হবে। 

  • আপনি যদি প্রথম গিয়ারে থাকেন, তাহলে শিফটার অর্ধেক প্রেস করে ছেড়ে দিন, আপনি নিউট্রালে চলে যাবেন। 
  • যদি ক্লাচ আর থ্রোটল টেনে ধরার পরেও কিছু না হয়, তাহলে বুঝে নিবেন আপনি অলরেডি নিউট্রাল গিয়ারে আছেন। গিয়ার শিফট করার জন্য আপনার ক্লাচ টেনে ধরুন এবং শিফটার উপরের দিকে উঠান। 
  • যদি কোনো গিয়ার মিস হয়ে যায়, তাহলে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। ততক্ষণ আপনার বাইকের কোনো ক্ষতি হবে না যতক্ষণ আপনি থ্রোটল আর গিয়ার পজিশন ম্যাচ করছে। 

৫। মোটরসাইকেল গিয়ার ডাউনশিফট। 

থ্রোটল আস্তে আস্তে ছেড়ে দিন এবং ক্লাচ টেনে ধরুন। গিয়ার শিফটার একবার নিচের দিকে প্রেস করে ছেড়ে দিন। আপনার বর্তমান স্পিডের সাথে আস্তে আস্তে ক্লাচ আর থ্রোটলের পজিশন ম্যাচ করে ফেলুন। এভাবেই শিফটারে নিচের দিকে প্রেস করা ও থ্রোটল আর ক্লাচের পজিশন ম্যাচ করার মাধ্যমে আপনি নিচের দিকের গিয়ারে চলে আসতে পারবেন। 

সেমি-অটোমেটিক ট্রান্সমিশনে গিয়ার শিফট

সেমি-অটোমেটিক ট্রান্সমিশনের ক্ষেত্রে কিছু কাজ অটোমেটিকালি হয়ে যায়, তবে বাকি কাজ রাইডারকে নিজে নিজেই করতে হয়। 

১। কন্ট্রোলগুলোর সাথে পরিচিত হয়ে নিন। 

এই ট্রান্সমিশনে আপনাকে শুধু থ্রোটল আর গিয়ার শিফটারের ব্যবহার করতে হবে। সেমি-অটোমেটিক ট্রান্সমিশনে ক্লাচ আর গিয়ার শিফটার একসাথে থাকে, তাই শুধু শিফটার কন্ট্রোল করার মাধ্যমে উভয়ই কন্ট্রোল করা যায়। 

২। বাইক স্টার্ট করুন। 

বাইক স্টার্ট করে এখন আপনাকে নিউট্রালে নিয়ে আসতে হবে। 

৩। প্রথমে গিয়ারে চলে আসুন।

এখন আপনাকে থ্রোটল টেনে ধরে শিফটার একবার নিচের দিকে প্রেস করতে হবে। প্রতিবার বাইক স্টার্ট করার পর শিফটার একবার নিচের দিকে প্রেস করলেই আপনি প্রথম গিয়ার পেয়ে যাবেন। আর পরবর্তী গিয়ারগুলোতে যাওয়ার জন্য আপনাকে একবার করে শিফটার উপরের দিকে প্রেস করতে হবে। 

৪। পরবর্তী গিয়ারগুলোতে শিফট করুন। 

প্রথম গিয়ারে আসার পর ইঞ্জিনে থ্রোটল দিন আর শিফটার উপরের দিকে প্রেস করুন। একবার করে প্রেস করলে আপনি একটি করে উপরের দিকের গিয়ারে যেতে থাকবেন। 

৫। মোটরসাইকেল গিয়ার ডাউনশিফট। 

নিচের দিকের গিয়ারে শিফট করার জন্য আপনাকে যাস্ট শিফটার একবার করে নিচের দিকে প্রেস করতে হবে। বাইক থেমে যাওয়ার পর মনে করে তা নিউট্রালে নিয়ে আসবেন অবশ্যই। 

পরিসংহার

মোটরসাইকেল গিয়ার শিফট বেশ বেসিক একটি কাজ। তবে বাইক চালানো শেখার পর অনেকে গিয়ার শিফটিং বুঝতে এবং তা মনে রাখতে কিছুটা সমস্যা ফেইস করেন। এই ব্লগে দেখানো স্টেপগুলো ফলো করার মাধ্যমে আপনি বেশ সহজেই এখন থেকে গিয়ার শিফট করতে পারবেন বলে আশা করছি। তবে গিয়ার শিফটিং শেখার সময় অবশ্যই সেফটি গিয়ার পরে নিতে ভুলবেন না যেন।

Newbies can find motorcycle gear shifting a bit challenging at first. So, for your convenience, we are going to show you gear-shifting techniques for both manual and semi-automatic transmission systems.

Shifting Gears in Manual Transmission

  • Get acquainted with clutch, throttle, and gear shifter. 

The clutch is used for transferring torque from the engine to the transmission, and you can find it in front of the left handgrip. The throttle is used for increasing the engine RPM, and you can find it on the right handgrip. A shifter is used for shifting from one gear to another, and you can find it near the left-foot paddle. 

  • Start the bike. 

Press the clutch and start the bike by pressing the start button. You are in neutral gear if you can see a green ‘N’ light on the meter console. 

  • Shift into the first gear. 

Roll the throttle to the front, press the clutch, and press the shifter downward for once. Release the throttle and clutch slowly, and the bike will start to move. Don’t release the throttle and clutch all at once. 

  • Shift to the other gears. 

Roll the throttle back, press the clutch slowly, and press the shifter upward. Every time you do this, you will move one gear up. 

  • Shift down to the lower gears. 

Release the throttle, press the clutch, and press the shifter down once. Every time you do this, you will move to a lower gear. 

Shifting gears in a semi-automatic transmission

  • Get acquainted with the controls. 

You have just to use the throttle and shifter in this transmission as the clutch and the shifter are built together. 

  • Start the bike. 

Start the bike and bring it to the neutral gear. 

  • Shift into the first gear. 

Roll the throttle backward and press the shifter downward for once. You will successfully move from the neutral gear to the first gear. 

  • Shift into the other gears. 

Once you are in the first gear, throttle the engine and press the shifter upward. Every time you do this, you will shift to one gear up. 

  • Shift to the down gears. 

Just press the shifter downward for once, and you’ll find yourself in the gear down. Do this until you reach the first gear. Make sure to keep the bike in neutral every time the bike stops. 

Conclusion 

Although you may find the rules a bit challenging at first, we are sure that you will perfect yourself once you do some practice. Just remember the patterns we mentioned above. 

গ্রাহকদের কিছু নিয়মিত জিজ্ঞাসা

গিয়ার মিস করলে কি বাইকের ক্ষতি হয়?

গিয়ার মিস করা বেশ সাধারণ ব্যাপার হলেও আপনাকে অবশ্যই স্পিডের সাথে থ্রোটল আর ক্লাচ ম্যাচ করতে হবে। ম্যাচ করতে না পারলে ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

গিয়ার শিফট করার সময় ক্লাচ ব্যবহার না করলে কি হয়?

গিয়ার শিফট করার সময় ক্লাচ ব্যবহার না করলে আপনার ট্রান্সমিশন সিস্টেম ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে এবং আপনার বাইক থেমে যেতে পারে।

কোন গিয়ার সবচেয়ে বেশি ফুয়েল কনজ্যুম করে?

১ম গিয়ার সবচেয়ে বেশি ফুয়েল কনজ্যুম করে থাকে।

ক্লাচ আর ব্রেক একসাথে প্রেস করলে কি বাইকের ক্ষতি হয়?

না, ক্লাচ আর ব্রেক প্রেস করার উদ্দেশ্য মূলত একই, বাইকের গতি কমানো, তাই এতে কোনো ক্ষতি হয় না।

১ম গিয়ারে কতো স্পিড পর্যন্ত থাকা যাবে?

সাধারণত ০ থেকে ১৫ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা পর্যন্ত ১ম গিয়ারে থাকা উচিত।

Similar Advices

Buy New Bikesbikroy
TVS Apache RTR 2021 for Sale

TVS Apache RTR 2021

25,500 km
verified MEMBER
verified
Tk 122,000
3 hours ago
Hero HF honda 2021 for Sale

Hero HF honda 2021

126,250 km
MEMBER
Tk 45,000
10 hours ago
ATV Ace 2022 for Sale

ATV Ace 2022

24,000 km
MEMBER
Tk 24,000
10 hours ago
Dayang AD-80s 2012 for Sale

Dayang AD-80s 2012

20,000 km
MEMBER
Tk 33,000
2 days ago
Runner Freedom F100-6A 2023 for Sale

Runner Freedom F100-6A 2023

0 km
verified MEMBER
verified
Tk 77,900
3 days ago
Buy Used Bikesbikroy
Runner Turbo 125 . 2020 for Sale

Runner Turbo 125 . 2020

13,000 km
MEMBER
Tk 60,000
4 minutes ago
Walton . 2018 for Sale

Walton . 2018

2,000 km
MEMBER
Tk 30,000
36 minutes ago
Bajaj Pulsar 150 2012 for Sale

Bajaj Pulsar 150 2012

45,000 km
MEMBER
Tk 65,000
1 hour ago
Bajaj Discover 150 2011 for Sale

Bajaj Discover 150 2011

20,000 km
MEMBER
Tk 65,000
1 hour ago
Dayang DY-100 . 2010 for Sale

Dayang DY-100 . 2010

30,000 km
MEMBER
Tk 30,000
1 hour ago
+ Post an ad on Bikroy