মোটরসাইকেল ইনস্যুরেন্স লাগবে না নতুন আইনে

29 Mar, 2023   
মোটরসাইকেল ইনস্যুরেন্স লাগবে না নতুন আইনে

অনেকেই জানতে চান বর্তমানে বাংলাদেশে মোটরসাইকেল ইনস্যুরেন্স লাগে কিনা। আজকের আর্টিকেলে আমরা আপনাদের জানাবো নতুন আইনে মোটরসাইকেল ইনস্যুরেন্স লাগবে কিনা, এবং ইনস্যুরেন্স না থাকলে কোনো আইনি ঝামেলা হওয়ার ঝুকি আছে কিনা।

আপনার যদি একটি মোটরসাইকেল থেকে থাকে তবে তার লাইসেন্স থেকে শুরু করে ইনস্যুরেন্স করাটাও বেশ গুরুত্বপূর্ণ। কারন একটি ইনস্যুরেন্স পলিসি আপনার মোটরসাইকেলকে যেকোনো ধরনের দুর্ঘটনা, চুরি, আগুন এবং অন্যান্য ঝুঁকি থেকে রক্ষা করবে।

আপনার বাইক চুরি বা ক্ষতিগ্রস্থ হলে ইনস্যুরেন্স পলিসি আপনাকে আপনার মোটরসাইকেলের ক্ষতি অথবা মোটসাইকেল দ্বারা ঘটিত ক্ষতির জন্য ক্ষতিপূরণ দাবি করতে সাহায্য করবে। আপনি পলিসিটি অনলাইনে, বীমা কোম্পানির মাধ্যমে বা সরাসরি ইস্যুকারীর কাছ থেকে কিনতে পারেন। তাহলে চলুন জেনে নেই মোটরসাইকেল ইনস্যুরেন্স লাগবে নাকি লাগবে না।

মোটরসাইকেল ইনস্যুরেন্স কি লাগে?

বর্তমানে মোটরসাইকেল ইনস্যুরেন্স লাগে না। বাংলাদেশে মোটরসাইকেল ইনস্যুরেন্স এক সময় বাধ্যতামূলক ছিলো, কিন্তু ২০২০ সালে প্রণীত সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ বাইক মালিকদের বীমা পলিসি নেওয়া বাধ্যতামূলক থেকে ঐচ্ছিক করে দিয়েছে। বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি পুলিশকে নির্দেশ দেয় যে তৃতীয় পক্ষের বীমা না থাকার জন্য কোনো মোটর গাড়ি বা গাড়ির মালিকের বিরুদ্ধে কোনো মামলা করা যাবে না।

মোটরযান অধ্যাদেশ ১৯৮৩-এর ১০৯ ধারা অনুসারে, তৃতীয় পক্ষের বীমা বাধ্যতামূলক ছিল, যা লঙ্ঘন করা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। কিন্তু বিদ্যমান সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ অনুযায়ী, তৃতীয় পক্ষের বীমা বাধ্যতামূলক নয় এবং এই ব্যবস্থা লঙ্ঘনের জন্য আইনে কোনো শাস্তির বিধান নেই। এই পরিস্থিতিতে তৃতীয় পক্ষের বীমা না থাকার কারণে কোনো মালিক বা গাড়ির বিরুদ্ধে এই আইনে কোনো মামলা করার সুযোগ নেই। যদিও সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ দুই বছর আগে পাশ হয়েছে, কিন্তু এখনও পর্যন্ত বিষয়টি আলোচনায় আসেনি।

এছাড়াও এই আইনে তৃতীয় পক্ষের বীমা বাতিল করে ক্ষতিগ্রস্থ যাত্রী, চালক এবং তৃতীয় পক্ষদের একটি তহবিল থেকে ক্ষতিপূরণ প্রদানের একটি নতুন বিধান চালু করা হয়েছে। ফলে এটি অন্যান্য খাতকে একটি স্ব-বীমা পুল গঠনে উৎসাহিত করবে।

মোটরসাইকেল ইনস্যুরেন্স কেনো জরুরী?

আপনি যদি বাইকের বীমা না কিনে থাকেন, তাহলে আপনার বাইকের যে কোনো ক্ষতি বা আঘাতের জন্য আপনাকে দায়ী করা হতে পারে।

মোটরসাইকেল ইনস্যুরেন্সের দুটি প্রধান প্রকার রয়েছেঃ বেসিক এবং কম্প্রিহেন্সিভ।

এই দুই ধরনের কভারেজের মধ্যে প্রাথমিক পার্থক্য হল তারা কতটা কভারেজ প্রদান করে। বেসিক বাইক বীমা সাধারণত আপনার বাইক প্রতিস্থাপনের খরচ কভার করে, তবে চুরির দাবির মতো অন্যান্য খরচ এতে অন্তর্ভুক্ত না।

কম্প্রিহেন্সিভ বাইক ইন্স্যুরেন্সের মধ্যে এই সমস্ত খরচ অন্তর্ভুক্ত রয়েছে, সেইসাথে আপনি যদি আপনার বাইক চালানোর সময় দুর্ঘটনার শিকার হন তবে আপনার মামলার জন্য আপনাকে আইনি প্রতিরক্ষা প্রদান করবে।

শারীরিক কভারেজ

শারীরিক কভারেজের মধ্যে আপনার বাইকের ক্ষতিগ্রস্থ অংশ এবং হেলমেট, লক এবং পোশাকের মতো আইটেমগুলো হারিয়ে গেলে সেগুলোর প্রতিস্থাপন খরচ এতে অন্তর্ভুক্ত থাকে (যদি আপনি রাতে লক আপ করেন) । এই ধরনের পলিসি বাইক চুরি বা বাইকের ক্ষতিগ্রস্থ অংশগুলি প্রতিস্থাপনের খরচ ছাড়া সবকিছুর জন্য অর্থ প্রদান করে। যার মধ্যে রয়েছে দ্রুত গতি, স্টপ সাইনেও চালানো এবং হেলমেট না পরা। এছাড়াও লাইসেন্স ছাড়া গাড়ি চালানো, অনুমোদিত সুরক্ষা গিয়ার (যেমন চোখের সুরক্ষা) না পরা বা রাস্তার ভুল দিকে গাড়ি চালানোর কারণে সৃষ্ট ক্ষতিগুলিও কভার করে।

শারীরিক কভারেজ

অ-শারীরিক কভারেজ সর্বজনীন রাস্তায়, ট্রেইল বা ফুটপাতে চড়ার সময় ঘটতে থাকা শারীরিক আঘাত এবং সম্পত্তির ক্ষতির জন্য দায়বদ্ধতা সুরক্ষা প্রদান করে। এই পলিসি আপনাকে আপনার বাইক মেরামত বা প্রতিস্থাপনের খরচ কভার করতে সাহায্য করবে, সেইসাথে আপনার বাইক চালানোর সময় গ্রেপ্তার হলে আপনাকে যে কোনো আইনি ফি দিতে সাহায্য করবে। এতে ক্ষতিগ্রস্থ রিম এবং ফ্রেম, ভাঙা উইন্ডশিল্ড এবং সাইড প্যানেল এবং ফাটল বাম্পারগুলির মতো জিনিসগুলি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। এমনকি যদি সেগুলি অন্য কারও দ্বারা ঘটে থাকে যে দুটি বা ততোধিক যানবাহন জড়িত দুর্ঘটনায় দোষী ছিল।

মোটরসাইকেল ইন্সুরেন্স আইন ২০২২

মোটর গাড়ি বীমা প্রয়োজনীয়তা বাংলাদেশে আইন দ্বারা প্রদান করা হয়। সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ অনুযায়ীঃ

উপ-ধারা ১ এ বলা হয়েছে যে একটি মোটর গাড়ির মালিক বা সংস্থা যদি ইচ্ছা করে, পরিবহনের জন্য নির্দিষ্ট যাত্রীর সংখ্যার জন্য তার মালিকানাধীন যে কোনও মোটর গাড়ির জীবন ও সম্পত্তির বীমা করতে পারে।

উপ-ধারা ২ অনুযায়ী, মোটর গাড়ির মালিক বা সংস্থা নিয়ম অনুযায়ী তাদের অধীনে পরিচালিত মোটর গাড়ির বীমা করবে এবং মোটর গাড়ির দুর্ঘটনা বা ক্ষতি বীমা দ্বারা আচ্ছাদিত করা হবে। বীমাকারী উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ পাবেন।

উপ-ধারা ৩ বলে যে একটি মোটর গাড়ি দুর্ঘটনায় জড়িত বা ক্ষতিগ্রস্ত হলে, এটি সেই মোটর গাড়ির জন্য ধারা ৫৩ এর অধীনে গঠিত আর্থিক সহায়তা তহবিল থেকে কোনো ক্ষতিপূরণ দাবি করতে পারবে না।

মোটর ভেহিকেল ট্যাক্স অ্যাক্ট, ১৯৩২ অনেকগুলি মোটর গাড়ির জন্য নির্ধারিত করে যেগুলি পাবলিক রাস্তা বা হাইওয়েতে চালনোর সময় বাধ্যতামূলক মোটর গাড়ির বীমা প্রয়োজন৷ এটি বিভিন্ন ধরণের যানবাহনের জন্য ন্যূনতম মোটর গাড়ির বীমা প্রয়োজনীয়তাও নির্দিষ্ট করে।

মোটর যানবাহন ট্যাক্স বিধি, ১৯৬৬ বীমাকৃত ব্যক্তিদের মোটর গাড়ির বিষয়ে কিছু অতিরিক্ত শুল্ক এবং সরকারী রাস্তা বা মহাসড়কে তাদের পরিচালনা সম্পর্কে কিছু অতিরিক্ত শুল্ক ধার্য করে।

যারা এই নিয়মগুলি মেনে চলতে ব্যর্থ হয় তাদের বিরুদ্ধে জরিমানা এবং সেইসাথে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে প্রিমিয়ামের পরিমাণ পরিশোধ করতে না পারার জন্য লঙ্ঘনের শাস্তি প্রদান করা হবে। এটি বেঙ্গল মোটর ভেহিক্যাল ট্যাক্স রেগুলেশনস আইনের অধীনে আইন ও প্রবিধান দ্বারা নির্ধারিত করা হয়েছে।

বাংলাদেশে মোটরসাইকেল চালানোর নিয়ম কানুন

আমাদের দেশে মোটরসাইকেল যেমন প্রয়োজনীয় যানবাহন তেমনি মোটরসাইকেল চালানো বেশিরভাগ মানুষের কাছে খুবই জনপ্রিয়। তবে মোটরসাইকেল চালানোর আগে আপনাকে অবশ্যই এর নিয়ম কানুন জেনে নিতে হবে।

মোটরসাইকেল চালানোর নিয়মগুলি বেশ সহজঃ


  • বাংলাদেশে মোটরসাইকেল চালানোর সর্বনিম্ন বয়স ১৮ বছর। সাধারণ রাইডিং নীতি হল সামনের সিটে একজন অভিজ্ঞ রাইডার থাকা বাধ্যতামূলক এবং মোটরসাইকেল চালানোর আগে আপনার কাছে সমস্ত প্রয়োজনীয় লাইসেন্স আছে তা নিশ্চিত করে নিবেন।
  • রাইডারকে রাস্তায় মোটরসাইকেল চালানোর সময় হেলমেট পরতে হবে। বাংলাদেশে আইন অনুসারে হেলমেট আবশ্যক এবং বাইক চালানোর সময় আরোহীদের নিশ্চিত হওয়া উচিত যে তাদের সাথে একটি হেলমেট আছে কিনা।
  • হাইওয়েতে অনুমোদিত সর্বোচ্চ গতি হল ৮০ কিমি/ঘন্টা, যদি মোটরসাইকেল চালকের ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকে এবং ৫০ কিমি/ঘন্টা (৩০ মাইল) যদি লার্নার্স পারমিট থাকে। এটি শুধুমাত্র বাংলাদেশী রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটির (বিআরটিএ) অধীনে নিবন্ধিত মোটরসাইকেলের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।
  • শহুরে এবং গ্রামীণ উভয় রাস্তায় মোটরসাইকেল চালানো যেতে পারে, তবে হাইওয়েতে সেগুলি অবশ্যই ৫০ কিমি/ঘন্টা (৩০ মাইল) বা অন্য রাস্তায় ১০ কিমি/ঘন্টা (৬ মাইল) এর বেশি হবে না৷
  • রাইডারদের অবশ্যই তাদের গাড়ির জন্য বীমা কভারেজ থাকতে হবে। রাইডাররা রাস্তায় চলাকালীন তাদের বাইক বা গাড়িতে কিছু ভুল হলে তাদের জন্য বীমা থাকা দরকার।
  • মেইন রোড দিয়ে গাড়ি চালানোর সময় আপনাকে অবশ্যই ট্রাফিক আইন মেনে চলতে হবে এবং সর্বদা ট্রাফিক সিগন্যাল অনুসরণ করতে হবে অন্যথায় আপনাকে জরিমানা গুনতে হবে।

শেষকথা

পরিশেষে, ২০২০ সালের নভেম্বর মাসে পাশকৃত সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ অনুযায়ী মোটরসাইকেল বীমা পলিসি থাকা বাধ্যতামূলক নয়। ফলে এখন থেকে আপনার মোটরসিকেলের ইনস্যুরেন্স করা না থাকলে কোনো ধরনের মামলা হবে না। যদিও অনেক সময় দেখা যায় ট্রাফিক পুলিশের এই নতুন আইন সম্পর্কিত কোনো জ্ঞান না থাকায় গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা ও জরিমানা করছে। তবে বিআরটিএ খুব দ্রুত এই বাপারে পদক্ষেপ নিচ্ছে।

তাহলে মোটরসাইকেল চালানোর জন্য একমাত্র প্রয়োজনীয়তা হল হেলমেট পরা এবং একজন লাইসেন্সপ্রাপ্ত মোটরসাইকেল চালকের তত্ত্বাবধানে রাইড করা। মোটরসাইকেল চালকদের কোনো বিশেষ মোটরসাইকেল বীমা কভারেজের প্রয়োজন হবে না যতক্ষণ না তারা পাবলিক হাইওয়ে এবং রাস্তায় বৈধভাবে রাইড করছেন।

আশা করছি আমাদের আজকের আর্টিকেলটি আপানদের ভালো লেগেছে। আপনার কোন মতামত থাকলে লিখে জানান আমাদের কমেন্ট সেকশনে।

ঃ মোটরসাইকেল ইনস্যুরেন্স কি লাগে? কেন জরুরি? শারীরিক কভারেজ, অ- শারীরিক কভারেজ, মোটরসাইকেল ইনস্যুরেন্স আইন ২০২২, মোটরসাইকেল চালানোর নিয়ম।

Similar Advices

Buy New Bikesbikroy
Honda SP125 2024 for Sale

Honda SP125 2024

320 km
MEMBER
Tk 175,000
5 hours ago
GOLF kart 6 seater 2023 for Sale

GOLF kart 6 seater 2023

0 km
verified MEMBER
Tk 1,065,000
6 days ago
TVS Apache RTR 2021 for Sale

TVS Apache RTR 2021

25,600 km
verified MEMBER
verified
Tk 122,000
22 hours ago
Suzuki . 2022 for Sale

Suzuki . 2022

14,000 km
MEMBER
Tk 242,000
23 hours ago
Bajaj Discover 125 CBS 2022 for Sale

Bajaj Discover 125 CBS 2022

14,860 km
verified MEMBER
Tk 135,000
1 day ago
Buy Used Bikesbikroy
Suzuki Gixxer Monoton 10yrs reg 2016 for Sale

Suzuki Gixxer Monoton 10yrs reg 2016

15,790 km
verified MEMBER
verified
Tk 135,000
2 minutes ago
Yamaha Fazer Fz 2017 for Sale

Yamaha Fazer Fz 2017

40,000 km
MEMBER
Tk 69,999
4 minutes ago
Bajaj Discover 100 . 2016 for Sale

Bajaj Discover 100 . 2016

63 km
MEMBER
Tk 63,000
5 minutes ago
Bajaj Pulsar AS fhon er dam a bike 2016 for Sale

Bajaj Pulsar AS fhon er dam a bike 2016

40 km
MEMBER
Tk 40,000
8 minutes ago
Hero Glamour 2018 for Sale

Hero Glamour 2018

10,526 km
verified MEMBER
verified
Tk 85,000
8 minutes ago
+ Post an ad on Bikroy