GPX Legend 150S – রিভিউ, দাম, ফিচার, স্পেক, ও অন্যান্য

07 Mar, 2023
GPX Legend 150S – রিভিউ, দাম, ফিচার, স্পেক, ও অন্যান্য

GPX একটি ক্লাসিক স্টাইলিশ মোটরসাইকেল ব্র্যান্ড। থাইল্যান্ডে এই ব্র্যান্ডের বাইক নির্মিত হয়। থাইল্যান্ডে এই বাইকগুলো লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড হিসেবে পরিচিত। মার্কেট ট্রেন্ডের সাথে গ্রাহকদের রুচিবোধ বিবেচনা করে এই ব্র্যান্ডটি বিভিন্ন স্টাইলিশ বাইক বাজারে নিয়ে আসে। জিপিএক্স ব্র্যান্ডের বাইকের ইউনিক ডিজাইন, গর্জিয়াস লুক এবং মাস্কুলার বডি স্ট্রাকচার যে কারো চোঁখে আটকাবে। গ্রাহকদের চাহিদার প্রেক্ষিতে GPX বেশ কিছু ক্যাটাগরির বাইক বাজারে এনেছে। এই ব্র্যান্ডের স্পোর্টস, ক্যাফে-রেসার এবং কমিউটার বাইক খুবই জনপ্রিয়।

GPX Legend 150S হলো জিপিএক্স ব্র্যান্ডের একটি আকর্ষণীয় ডিজাইনের ক্যাফে-রেসার ক্যাটাগরির বাইক। ইউনিক এবং এট্রাক্টিভ ডিজাইন এটিকে একটি অনন্য লুকিং স্টাইলিশ বাইক হিসেবে বাজারে জনপ্রিয় করেছে। বাইকটির শক্তিশালী ইঞ্জিন, দুর্দান্ত গতি, এবং কম্ফোর্টেবল কন্ট্রোলিং আপনাকে একটি স্মুথ রাইডিং এক্সপেরিয়েন্স দেবে। সত্যিকার অর্থেই এটি একটি দুর্দান্ত ক্যাফে-রেসার বাইক।

বাংলাদেশে GPX ব্র্যান্ডের বেশ কিছু বাইক বাজারে পাওয়া যায়। এগুলোর মধ্যে GPX Legend 150S অন্যতম জনপ্রিয় একটি বাইক। দুর্দান্ত গতি, পাওয়ারফুল ইঞ্জিনের সাথে গর্জিয়াস ডিজাইন এটিকে তরুণ প্রজন্মের কাছে একটি কাঙ্খিত বাইকে পরিণত করেছে। লঞ্চ করার পর থেকেই এই বাইকটি তুমুল জনপ্রিয়তা ধরে রেখেছে। এই ব্লগে GPX Legend 150S রিভিউ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

আমাদের দেশে ১৬০ সিসি’র বেশি ডিসপ্লেসমেন্ট ইঞ্জিন আমদানি নিষিদ্ধ। তাই জিপিএক্স ব্র্যান্ডের হাইয়ার সিসি’র বাইক আমাদের দেশে পাওয়া যায় না। কিউবিক ক্যাপাসিটি লিমিট (সিসি লিমিট) এর কারণে আমরা এখানে বাংলাদেশে শুধুমাত্র ১৬৫সিসি এর নিচে বাইক পাই। জিপিএক্সের দুটি মোটরসাইকেল বাংলাদেশে এভেইলেবল, সেগুলো হল GPX Demon 150GR এবং GPX Legend 150S। এখানে আমরা GPX Legend 150S নিয়ে কথা বলব।

GPX Legend 150S

GPX একটি থাইল্যান্ড ভিত্তিক একটি মোটরসাইকেল প্রস্তুতকারক কোম্পানি। জিপিএক্স বরাবরই স্পোর্টবাইক এবং স্ক্র্যাম্বলার টাইপ বাইকের জন্য জনপ্রিয়। জিপিএক্স ব্র্যান্ডের ১২৫সিসি থেকে ৩০০সিসি পর্যন্ত বাইক রয়েছে। GPX Legend 150S আমাদের দেশে খুবই জনপ্রিয় একটি ক্যাফে-রেসার ক্যাটাগরির মোটরসাইকেল। এর শক্তিশালী ইঞ্জিন, এক্সসেপশনাল ডিজাইন, নিরাপদ ব্রেকিং সিস্টেম এবং স্মুথ রাইডিং এক্সপেরিয়েন্সের কারণে এটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

জিপিএক্স লেজেন্ড ১৫০এস বাইকটিতে ১৪৯ সিসি’র পাওয়ারফুল  ডিসপ্লেসমেন্ট ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে। বাইকটি সিঙ্গেল সিলিন্ডার, ৪-স্ট্রোক, ২-ভালভ, এবং সিঙ্গেল ওভারহেড ক্যাম সেটআপ ইঞ্জিন দ্বারা চালিত। এটি ঘন্টায় ১২০ কিলোমিটারের বেশি গতি তুলতে পারে। এবং এভারেজ মাইলেজ ৪০ কিমি/লিঃ।

বাইকটি বডি ডাইমেনশন, সাসপেনশন, ব্রেকিং সিস্টেম, মাইলেজ সবকিছু মিলে একটি কম্প্যাক্ট প্যাকেজ। এর অ্যাটাচড লেদার সিট ব্রেড ডিজাইন একটি  ক্লাসিক স্টাইল দেয়। কনসোল প্যানেলে ডিজিটাল ফিচারস এবং ইলেক্ট্রিক ফিচারস আপনাকে মুগ্ধ করবে। এখানে জিপিএক্স লেজেন্ড ১৫০এস রিভিউ, দাম স্পেসিফিকেশন, ফিচারস, এবং কিছু ভালো-মন্দ দিক নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে।

জিপিএক্স লেজেন্ড ১৫০এস ফিচার

GPX Legend 150S হলো একটি স্ক্র্যাম্বলার টাইপ ক্যাফে-রেসার ক্যাটাগরির বাইক। বাইকটির ইউনিক স্ক্র্যাম্বলার এরগনোমিক্স ডিজাইন এটিকে একটি ডিসেন্ট লুক দিয়েছে। বাইকটিতে একটি আপ-রাইট এবং চওড়া হ্যান্ডেলবার রয়েছে, যা কম্ফোর্টেবল ভাবে বাইক চালাতে সাহায্য করে। বাইকটির সিটিং পজিশন ছোট কিন্তু আরামদায়ক, এই ডিজাইনটি মূলত স্ক্র্যাম্বলারের মতো।

বাইকটির কম্প্যাক্ট শেপ এটিকে কন্ট্রোল করা বেশ সহজ করেছে। বাইকের হ্যালোজেন হেডল্যাম্প এবং এলইডি টেললাইট এটির ডিজাইন আরো গর্জিয়াস করেছে। হেডলাইটটি বৃত্তাকারভাবে ডিজাইন করা হয়েছে এতে বাইকটিকে আরও ক্লাসিক লুক দিয়েছে। বাইকটিতে এলইডি ইন্ডিকেটরও রয়েছে, যা বেশ ভারী। বাইকটি তিনটি ভিন্ন কালারে পাওয়া যাচ্ছে; কালো, সাদা এবং ধূসর।

জিপিএক্স লেজেন্ড ১৫০এস বাইকটি স্ক্র্যাম্বলার প্রেমীদের লক্ষ্য করে বাজারে আনা হয়েছে। বাইকাররা যারা অফ-রোডিং করেন, হাইওয়ে রোডে যাতায়াত করেন, এবং রেসার টাইপ বাইক পছন্দ করেন, তাদের জন্য এই বাইকটি দুর্দান্ত হবে। এছাড়াও বাইকটি অনেক বাইকারদের আকৃষ্ট করবে যারা মিনিমালিস্টিক ক্লাসিক লুক টাইপ বাইক খুঁজছেন। বাইকারদের রিভিউ অনুযায়ী জিপিএক্স লেজেন্ড ১৫০এস ফিচার দুর্দান্ত।

স্পেশাল ফিচারস –

বাইক টাইপ ক্যাফে রেসার
ব্র্যান্ড অরিজিন থাইল্যান্ড
ইঞ্জিন ডিসপ্লেসমেন্ট ১৪৯ সিসি
ইঞ্জিন টাইপ ৪-স্ট্রোক, সিঙ্গেল-সিলিন্ডার, এয়ার-কুল্ড
মাইলেজ ৪০ কিমি/লিঃ
টপ স্পিড ১২০ কিমি (সিটি); ১৩০ (হাইওয়ে)
ব্রেক টাইপ সামনে ডিস্ক ব্রেক এবং পেছনে ড্রাম ব্রেক
সাসপেনশন সামনে টেলিস্কোপিক, পেছনে ডাবল রিয়ার শক
কনসোল প্যানেল ডিজিটাল
হুইল স্পোকস, এলোয় টাইপ
ট্যাংক ক্যাপাসিটি ১১.৫ লিটার
টোটাল ওজন ১৩০ কেজি
সিট টাইপ স্প্লিটসিট
স্টার্টটিং মেথড ইলেক্টিক স্টার্ট 

GPX Legend 150S ইঞ্জিন পারফরম্যান্স –

বাইকারদের জিপিএক্স লেজেন্ড ১৫০এস রিভিউ অনুযায়ী এই বাইকের ইঞ্জিন পারফরম্যান্সে তাঁরা খুবই সন্তুষ্ট। জিপিএক্স ব্র্যান্ডের বাইকের ইঞ্জিন পারফরম্যান্স বরাবরই খুবই স্ট্যান্ডার্ড। এই ইঞ্জিন বিএস৪ ইমিশন স্ট্যান্ডার্ড মানের। এই বাইকে ১৪৯.০ সিসি ডিসপ্লেসমেন্ট ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে। এই ইঞ্জিন কার্বুরেটেড এবং এয়ার-কুলড, সিঙ্গেল-সিলিন্ডার এবং ৪-স্ট্রোক সন্নিবেশিত। বাইকের ইঞ্জিন পাওয়ার নিরপেক্ষ ভাবে যাচাই করা সম্ভব হয়নি। তবে বাইকারদের রিভিউ অনুযায়ী এই ইঞ্জিন সর্বোচ্চ ১২ বিএইচপি পাওয়ার জেনারেট করতে পারে, এবং টর্ক সর্বোচ্চ ১৩ এনএম হতে পারে।

ইঞ্জিন ইমিশনে একটি বেসিক ওয়েট মাল্টি-প্লেট ক্লাচ সিস্টেম রয়েছে। ট্রান্সমিশনের জন্য ৬টি গিয়ার রয়েছে। রিভিউ অনুযায়ী বাইকটি টপ স্পীডে ১২০+ কিমি গতি তুলতে পারে, এবং মাইলেজ এভারেজ ৪০ কিমি/লিঃ।

         (১) ইঞ্জিন ডিসপ্লেসমেন্ট: ১৪৯ সিসি

         (২) ইঞ্জিন টাইপ: সিঙ্গেল সিলিন্ডার, এয়ার-কুল্ড, ৪-স্ট্রোক, এসওএইচসি

             (৩) ফুয়েল সিস্টেম: কার্বুরেটর

         (৪) ক্লাচ টাইপ: ওয়েট মাল্টি-ডিস্ক

         (৫) গিয়ার সংখ্যা: ৬

         (৬) বোর-স্ট্রোক:  ৬৩-৪৮

         (৭) এয়ার-ফিল্টার টাইপ: ডাবল ফোম ফিল্টার

         (৮) স্টার্টিং মেথড: ইলেকট্রিক স্টার্ট

জিপিএক্স লেজেন্ড ১৫০এস বডি ডাইমেনশন –

এই বাইকের বডি স্ট্রাকচার কম্প্যাক্ট। এটি একটি মাঝারি আকারের মোটরসাইকেল। বাইকটির ইউনিক ডিজাইন এবং দুর্দান্ত আউট-লুক এটিকে অতুলনীয় করেছে। বাইকারদের GPX Legend 150S রিভিউ অনুযায়ী এই বাইকের বডি ডাইমেনশন স্টাইলে তাঁরা খুবই সন্তুষ্ট।

এর দৈর্ঘ্য ২০১৫ মিমি, প্রস্থ ৮৩০ মিমি, এবং টোটাল উচ্চতা ১১০০ মিমি। গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স সহ এটির সিটিং পজিশনের উচ্চতা ৭৯০ মিমি। বাইকটি ৫.৪”এর বেশি উচ্চতার মানুষদের জন্য পারফেক্ট বলে বাইকাররা মনে করেন। বাইকটির জ্বালানি ক্ষমতা রিজার্ভ সহ ১১.৫ লিটার। ফুল ট্যাংকারে ৪৫০-৫০০ কিলোমিটার পথ অনায়াসেই অতিক্রম করা যায়। বাইকটির টোটাল ওজন ১৩০ কেজি। এটি বর্তমানে দেশের ১৫০ সিসি সেগমেন্টের মধ্যে সবচেয়ে হালকা বাইকগুলির মধ্যে একটি। এর হুইলবেস বেশ বড় ১৩৪০ মিমি, যা এটিকে কর্নারিংয়ে স্ট্যাবল রাখতে সাহায্য করে।

         (১) ফ্রেম টাইপ: ব্যাকবোন ফ্রেম

         (২) দৈর্ঘ্য: ২০১৫ মিমি

         (৩) প্রস্থ: ৮৩০ মিমি

         (৪) উচ্চতা: ১১০০ মিমি

         (৫) সিটিং পজিশনের উচ্চতা: ৭৯০ মিমি

         (৬) হুইলবেস: ১৩৪০ মিমি

         (৭) গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স: ১৬০ মিমি

         (৮) বাইকটির জ্বালানি ক্ষমতা রিজার্ভ সহ: ১১.৫ লিটার

         (৯) হ্যান্ডেল টাইপ: পাইপ

         (১০) ওজন: ১৩০ কেজি

 

GPX Legend 150S ব্রেক এবং সাসপেনশন –

স্ট্যান্ডার্ড ব্রেক এবং সাসপেনশন বাইকার এবং বাইকের নিরাপত্তার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। জিপিএক্স বেশ ভালো মানের ব্রেক এবং সাসপেনশন সিস্টেম দিয়ে থাকে। জিপিএক্স লেজেন্ড ১৫০এস রিভিউ অনুযায়ী বাইকাররা এই সিস্টেমে সন্তুষ্ট। এই বাইকের ব্রেক, ডিস্ক এবং ড্রামের সমন্বয়ে গঠিত। সামনের চাকায় একটি ডিস্ক ব্রেক রয়েছে, এটি বাইকের ব্রেকিং পারফরম্যান্সকে নিরাপদ করে। বাইকটির পেছনের চাকায় ভালো মানের ড্রাম ব্রেক রয়েছে। তবে কিছু বাইকাররা মনে করেন এরকম পাওয়ারফুল বাইকের পেছনের চাকায় ড্রাম ব্রেক মোটেও যথেষ্ট নয়। পিছনের একটি ডিস্ক ব্রেক বাইকের জন্য ভালো হতো বলে মনে করেন।

বাইকের সামনের দিকে একটি টেলিস্কোপিক ফর্ক এবং পিছনে একটি টেলিস্কোপিক স্প্রিং-লোডেড সেটআপ ব্যবহার করা হয়েছে। সামনের টেলিস্কোপিক ফর্কগুলি উঁচু-নিচু রাস্তার ধাক্কা ভালো মতো অবসর্ব করতে পারে। পিছনের ডুয়াল স্প্রিং-লোডেড সেটআপটি কমফোর্ট ভাবে চলতে সাহায্য করে।

         (১) সামনের সাসপেনশন: টেলিস্কোপিক

         (২) পেছনের সাসপেনশন: টেলিস্কোপিক ডাবল স্প্রিং-লোডেড

         (৩) সামনের ব্রেক: সিঙ্গেল ডিস্ক টাইপ

         (৪) সামনের ব্রেক সাইজ: ২২০ মিমি

         (৫) পেছনের ব্রেক সাইজ: ১৩০ মিমি

         (৬) পেছনের ব্রেক: ড্রাম টাইপ

         (৭) এবিএস এবং সিবিএস: নেই

 

জিপিএক্স লেজেন্ড ১৫০এস হুইল এবং টায়ার –

মানসম্মত হুইল এবং টায়ার নিরাপদ ব্রেকিং এবং বাইকারদের নিরাপত্তার জন্য দরকারি। GPX Legend 150S রিভিউ অনুযায়ী বাইকাররা এই বাইকের হুইল এবং টায়ারের মান নিয়ে সন্তুষ্ট। এই বাইকে স্পোকস মেটাল টাইপ হুইল ব্যবহার করা হয়েছে। টিউবলেস টায়ারটিও স্ট্যান্ডার্ড মানের। এতে ১১০/৯০ এবং একটি ১২০-৯০ টায়ার সেটআপ রয়েছে। সামনের টায়ারটি যথেষ্ট বড়। তবে বাইকারদের মতে পেছনের চাকাটি ১৩০/৯০ বা ১৪০/৯০ সেকশনের হলে ভালো হতো। বাইকের ওজন, গতি এবং ভারসাম্য বজায় রাখতে এই হুইল এবং টায়ার যথেষ্ট কার্যকর। জিপিএক্স লেজেন্ড ১৫০এস দাম বিবেচনায় হুইল এবং টায়ারের মান বেশ ভালো।

         (১) হুইল টাইপ: উভয় হুইল স্পোকি মেটাল অলোয়

         (২) টায়ার টাইপ: টিউবলেস

         (৩) সামনের টায়ার ডায়ামিটার : ১১০/৯০ – ১৭

         (৪) পেছনের টায়ার ডায়ামিটার :১২০/৯০ – ১৭

         (৫) সামনের হুইল সাইজ: ১৭ ইঞ্চি

         (৬) পেছনের হুইল সাইজ: ১৭ ইঞ্চি

 

GPX Legend 150S মাইলেজ –

স্ক্র্যাম্বলার বা ক্যাফে-রেসার টাইপ বাইক গতিময় হয়, কিন্তু মাইলেজ আশানুরূপ হয় না। তবে এই বাইকের মাইলেজ যথেষ্ট ভালো। রিভিউ অনুযায়ী বাইকটির এভারেজ মাইলেজ ৪০ কিলোমিটার পার লিটার। সিটি রাইডিংয়ে বাইকাররা ৩৫ কিলোমিটার মাইলেজ পেয়েছেন এবং হাইওয়েতে ৪৫ কিমি মাইলেজ পেয়েছেন। বাইকের স্পীড ১২০+ কিমি। হাইওয়েতে ১৩০ কিমি পর্যন্ত স্পীড পেতে পারেন। বাইকারদের জিপিএক্স লেজেন্ড ১৫০এস রিভিউ অনুযায়ী এই মাইলেজে তাঁরা খুবই সন্তুষ্ট।

         (১) এভারেজ মাইলেজ: ৪০ কিমি/লি

         (২) মাইলেজ (সিটি): ৩৫ কিমি/লি

         (৩) মাইলেজ (হাইওয়ে): ৪৫ কিমি/লি

         (৪) সর্বোচ্চ গতি: ১২০+ কিমি/এইচ

         (৫) সর্বোচ্চ গতি (হাইওয়ে): ১৩০ কিমি/এইচ (প্রায়)

 

জিপিএক্স লেজেন্ড ১৫০এস কনসোল প্যানেল এবং ইলেক্ট্রিক্যাল ফিচারস –

GPX Legend 150S রিভিউ অনুযায়ী এই বাইকের কনসোল প্যানেল এবং ইলেক্ট্রিক্যাল ফিচারস আধুনিক এবং সঠিক নির্দেশনা দেয়। বাইকের কনসোল প্যানেল সেমি-ডিজিটাল ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার টাইপ।

ইনস্ট্রুমেন্ট ক্লাস্টারে একটি স্পিডোমিটার, একটি ওডোমিটার, একটি গিয়ার পজিশন ইন্ডিকেটর, একটি ফুয়েল গেজ, একটি আরপিএম কাউন্টার এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় ইনডিকেটর রয়েছে। স্পিডোমিটারটি গোলাকার আকৃতির, দেখতে স্টাইলিশ, এটি সেমি-ডিজিটাল। ডিজিটাল অংশটি গতি, ওডো, ফুয়েল গেজ ইত্যাদি দেখায়। এই বাইকের সবচেয়ে ক্লাসিক অংশটি হল সামনের মাডগার্ড, এটি বাইকটিকে ইউনিক ডিজাইন দিয়েছে।

         (১) স্পিডোমিটার: ডিজিটাল

         (২) ওডোমিটার: ডিজিটাল

         (৩) ট্রিপমিটার: ডিজিটাল

         (৪) টেকোমিটার: এনালগ

         (৫) আরপিএম মিটার: ডিজিটাল

         (৬) ব্যাটারি টাইপ: মেইনটেন্যান্স ফ্রি (ডিসি এমএফ)

         (৭) ব্যাটারি ক্যাপাসিটি: ১২ ভোল্ট ৬.৩ এম্পেয়ার

         (৮) হেড লাইট: ১২ ভোল্ট ২৫/২৫ ওয়াট

         (৯) টেইল লাইট: লেড

         (১০) টার্ন ল্যাম্প: আছে (বালব)

         (১১) ইঞ্জিন কিল সুইচ: আছে

GPX Legend 150S Price in Bangladesh বাংলাদেশে GPX Legend 150S এর দাম

বাংলাদেশে GPX Legend 150S এর অফিসিয়াল দাম ৳160,000। আসল মূল্য কম বেশি হতে পারে যা আপনি ডিলার এর কাছ থেকে যাচাই করে নিতে পারেন।

GPX Legend 150S Pros সুবিধা

  • ইউনিক ডিজাইন এবং শক্তিশালী ইঞ্জিন
  • কম্ফোর্টেবল রাইডিং এক্সপেরিয়েন্স
  • স্মুথ সাসপেনশন
  • ভাল মাইলেজ
  • ক্লাসিক মাডগার্ড

GPX Legend 150S Cons অসুবিধা

  • পেছনের চাকায় ড্রাম ব্রেক ব্যবহার করা হয়েছে
  • ১৫০সিসি'র স্পীড বাইকের জন্য যা পর্যাপ্ত নয়
  • আধুনিক ব্রেকিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়নি
  • বাইকের পার্টস সব জায়গায় এভেইলেবল নয়

এক্সপার্ট অপিনিয়ন

7.5

Out of 10

GPX Legend 150S একটি দুর্দান্ত স্ক্র্যাম্বলার টাইপ মোটরসাইকেল। দুর্দান্ত গতি, পাওয়ারফুল ইঞ্জিনের সাথে গর্জিয়াস ডিজাইন এটিকে তরুণ প্রজন্মের কাছে একটি কাঙ্খিত বাইকে পরিণত করেছে। যারা রেগুলার অফ-রোডিং করেন, হাইওয়ে রোডে যাতায়াত করেন, এবং রেসার টাইপ বাইক পছন্দ করেন, তাদের জন্য এই বাইকটি লিস্টের প্রথম দিকেই থাকবে।

তবে মনে রাখবেন যারা বাইক চালানো শিখছেন বা নতুন বাইকারদের জন্য এটি আদর্শ বাইক নয়, এক্সপেরিয়েন্স বাইকারদের জন্য এই বাইক সাজেস্ট করা হয়েছে।

বাইক সম্পর্কিত যেকোনো তথ্যের জানার জন্য ভিজিট করুন বাইকস গাইডে। এখানে আপনি বিভিন্ন বাইককের রিভিউ, স্পেসিফিকেশন, ফিচারস এবং আরো বিভিন্ন তথ্য পাবেন। নতুন বা পুরোনো যেকোনো জিপিএক্স বাইকের দাম জানতে হলে চোখ রাখুন দেশের সেরা মোটরবাইক মার্কেটপ্লেস Bikroy.com-এ।

GPX is a classic stylish motorcycle brand. The unique design, gorgeous look and muscular body structure of this brand of bike will catch anyone’s eye. Sports, cafe-racers and commuter bikes of this brand are very popular. The GPX Legend 150S is an attractively designed cafe-racer category bike from the GPX brand. The bike’s powerful engine, great speed, and comfortable controlling will give you a smooth riding experience. It is truly a great cafe-racer bike.

This bike uses a powerful displacement engine of 149 cc. The bike is powered by a single cylinder, 4-stroke, 2-valve, and single overhead cam setup engine. It can reach a speed of more than 120 km per hour. And average mileage is 40 km/l. The bike is a compact package in terms of body dimensions, suspension, braking system, mileage. Its attached leather seat braid design gives a classic style. The digital features and electric features on the console panel will impress you. Gorgeous design along with great speed, powerful engine makes it a desirable bike among the younger generation.

The GPX Legend 150S bike is targeted at the scrambler lovers. The bike’s unique Scrambler ergonomics design gives it a decent look. The bike’s halogen headlamps and LED taillights make its design more gorgeous. The headlight is circular in design giving the bike a more classic look. For bikers who do off-roading, highway commuting, and prefer racer type bikes, this bike will be great. The bike will also attract many bikers who are looking for a minimalist classic look type bike.

GPX Legend 150S Price in Bangladesh GPX Legend 150S Price in Bangladesh

The official price of GPX Legend 150S in Bangladesh is ৳160,000. However, you should check the final price of the bike with the dealer.

GPX Legend 150S Video Review


08 Mar, 2023 - GPX Legend 150S একটি স্টাইলিশ ক্যাফে-রেসার টাইপ বাইক। বাইকটির ইউনিক ডিজাইন, শক্তিশালী ইঞ্জিন এবং স্মুথ রাইডিং এক্সপেরিয়েন্সের কারণে এটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

GPX Legend 150S-সম্পর্কে জিজ্ঞাসা

What type of bike GPX Legend 150S is?

GPX Legend 150S is a cafe race motorcycle.

What is the max engine power of GPX Legend 150S?

GPX Legend 150S motorcycle may have 12 bhp @ 8500 rpm max power, although there is no official information.

What is the mileage of GPX Legend 150S?

GPX Legend 150S can provide 40 Kmpl (Approx) mileage.

What is the top speed of GPX Legend 150S?

Top speed of GPX Legend 150S is 120 Kmph (Approx).

Who is the official distributor of GPX Legend 150S in Bangladesh?

Speedoz Limited is the official distributor of GPX Legend 150S motorcycle in Bangladesh.

GPX Legend 150S Specifications

Model name GPX Legend 150S
Type of bikeCafe Racer
Type of engine4 -Stroke,1-Cylinder
Engine power (cc) 149.0cc
Engine coolingAir Cooled
Max. Horse power0 Bhp @ 0 RPM
Max torque0 NM @ 0 RPM
Start methodElectric
Number of gears5
Mileage 40 Kmpl (Approx)
Top speed120 Kmph (Approx)
Front suspensionTelescopic
Rear suspensionDouble Spring Suspension
Front brake typeSingle Disc
Front brake diameterNo Info
Rear brake typeDrum Brake
Rear brake diameterNo Info
Braking systemNormal Braking System
Front tire size110/90 -17
Rear tire size120/90 -17
Tire typeTubeless
Overall length2015 mm
Overall height1100 mm
Overall weight130 Kg
WheelbaseNo Info
Overall width830 mm
Ground clearanceNo Info
Fuel tank capacity8 Liters
Seat height790 mm
Head lightLED
IndicatorsLED
Tail lightLED
SpeedometerDigital
RPM meterDigital
OdometerDigital
Seat typeSingle-Seat
Engine kill switchYes
Body colorsForest Green
Distributor/dealerSpeedoz Limited
Features,
Buy GPX Legend 150Sbikroy

No bikes found. Browse used section or Explore other models.

Buy Other Bikesbikroy
Suzuki Gixxer SF V4 Fi 155c 2024 for Sale

Suzuki Gixxer SF V4 Fi 155c 2024

4,210 km
verified MEMBER
verified
Tk 290,000
2 weeks ago
Bajaj Pulsar Single disc 2022 for Sale

Bajaj Pulsar Single disc 2022

12,752 km
verified MEMBER
Tk 160,000
1 hour ago
Zaara . 2013 for Sale

Zaara . 2013

28,000 km
MEMBER
Tk 31,000
1 hour ago
Yamaha FZS v3 2022 for Sale

Yamaha FZS v3 2022

12,000 km
MEMBER
Tk 220,000
1 hour ago
Bajaj Discover 125 . 2020 for Sale

Bajaj Discover 125 . 2020

32,000 km
verified MEMBER
Tk 110,000
1 hour ago
+ Post an ad on Bikroy