Honda Wave Alpha রিভিউ, দাম ও ফিচার

31 Mar, 2023
Honda Wave Alpha রিভিউ, দাম ও ফিচার

Honda Wave Alpha একটি জাপানি স্কুটার বাইক যা বাংলাদেশে এসেম্বল করা হয়। এটি একটি মোপড টাইপ বাইক। বাংলাদেশে হোন্ডা মোটরসাইকেলের তুমুল জনপ্রিয়তা রয়েছে। হোন্ডা ব্র্যান্ডের বাইকের উন্নত মানের ইঞ্জিন, টেকসই স্ট্রাকচার, ভালো মাইলেজ এবং স্পীড, সর্বোপরি পারফরম্যান্স সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের কাছে গ্রহণ যোগ্যতা পেয়েছে। হোন্ডা বেশ সাশ্রয়ী দামের মধ্যে মোটরসাইকেল বাজারজাত করে থাকে।

হোন্ডা মোটর কোম্পানি লিমিটেড একটি জাপানি বহুজাতিক কোম্পানি। কোম্পানিটি সারা বিশ্বে অটোমোবাইল, মোটরসাইকেল এবং পাওয়ার ম্যাটেরিয়ালস প্রস্তুতকারকের জন্য পরিচিত। হোন্ডা কোম্পানির অনেক মোটরসাইকেল আমাদের দেশে পাওয়া যায় এবং সবগুলোই হোন্ডা কোম্পানি সরাসরি বাংলাদেশে রপ্তানি করে এবং কিছু এসেম্বল করে। এই ব্লগে Honda Wave Alpha রিভিউ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

হোন্ডা ওয়েভ আলফা একটি কমিউটার ক্যাটাগরির মোপড টাইপ স্কুটার। স্কুটারটি লং লাস্টিং পারফর্ম্যান্সের জন্য বিখ্যাত। দৈনন্দিন ব্যবহারের জন্য এটি খুবই নির্ভরযোগ্য একটি স্কুটার। এটি জ্বালানি সাশ্রয়ী বাইক হিসেবে ব্যাপক জনপ্রিয়। এটি লিটারে প্রায় ৬০ কিঃমিঃ পর্যন্ত মাইলেজ দিয়ে থাকে। এটি ১০০ সিসি’র একটি স্কুটার। এটির ইঞ্জিন ৬.৭ বিএইচপি সর্বোচ্চ পাওয়ার প্রডিউস করতে পারে এবং ৭ এনএম সর্বোচ্চ টর্ক জেনারেট করতে পারে। স্কুটারটির হালকা ওজন, সাশ্রয়ী দাম এবং ভালো মাইলেজের কারণে নারী-পুরুষ এবং সকল শ্রেণী-পেশার মানুষদের কাছে এটি জনপ্রিয়।

Honda Wave Alpha

বাংলাদেশের রাস্তায় যানজটের পরিস্থিতি, যাত্রী অবান্ধব গণপরিবহণ ব্যবস্থার কারণে মোটরসাইকেলের ব্যবহার বাড়ছে। ওজনে হালকা, কন্ট্রোল করা সহজ এবং ব্রেকিং সিস্টেম সহজ বলে অনেকেই সিটি রাইডিংয়ের জন্য স্কুটার টাইপ বাইকের দিকে ঝুঁকছে। শহরের সড়কে যানজটের কারণে সময় বাঁচাতে স্কুটার বাইক অনেকের কাছে প্রথম পছন্দ হয়ে উঠেছে। এখানে হোন্ডা ওয়েভ আলফা রিভিউ, স্পেসিফিকেশন, ফিচারস, দাম, এবং কিছু ভালো-মন্দ দিক নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে।

হোন্ডা ওয়েভ আলফা স্কুটারটি লঞ্চ করার পর থেকে এখন পর্যন্ত জনপ্রিয়তা ধরে রেখেছে। স্কুটারটির ডিসেন্ট ডিজাইন, এবং লং লাস্টিং পারফরম্যান্সের কারণে এর নির্ভরযোগ্যতা গ্রাহকদের কাছে বেড়েছে। এছাড়াও মেইনটেনেন্স খরচ কম, এবং সার্ভিসিং করাও সুবিধাজনক এগুলোও অন্যতম কারণ।

এই মোপড টাইপ স্কুটারটিতে একটি ৯৭ সিসি’র ইঞ্জিন ডিসপ্লেসমেন্ট ব্যবহার করা হয়েছে যা একটি ৪-স্ট্রোক, সিঙ্গেল-সিলিন্ডার এবং সিঙ্গেল ওভারহেড ক্যাম (SOHC) দ্বারা গঠিত। এটি সর্বোচ্চ ৬.৭ বিএইচপি পাওয়ার প্রডিউস করতে পারে ৮০০০ আরপিএমে এবং সর্বাধিক ৭.০ এনএম টর্ক জেনারেট করতে পারে ৫৫০০ আরপিএমে। স্কুটারটিতে ৪ স্পিড ম্যানুয়াল গিয়ার ব্যবহার করা হয়েছে এবং এর সর্বোচ্চ গতি প্রতি ঘন্টায় ৯০ কিলোমিটার। এটি প্রতি লিটার জ্বালানিতে গড়ে ৬০ কিলোমিটার অতিক্রম করতে পারে।

স্কুটারটির বডি ডাইমেনশন যথেষ্ট কম্প্যাক্ট তাই সহজেই ব্যালান্স রাখা যায়। এই ধরণের বাইকের জ্বালানি ধারণ ক্ষমতা কম হয়। এটির জ্বালানি ধারণ ক্ষমতা ৩.৫ লিটার এবং রিজার্ভ প্রায় ০.৫ লিটার। স্কুটারটিতে ব্যাকবোন টাইপ চ্যাসিস রয়েছে; সাসপেনশন সিস্টেমে সামনে টেলিস্কোপিক ফর্ক এবং পিছনে সুইং আর্ম টাইপ সাসপেনশন। উভয় চাকায় ড্রাম টাইপ ব্রেক ব্যবহার করা হয়েছে। হোন্ডা কোম্পানি ৩টি কালার কম্বিনেশনে স্কুটারটি লঞ্চ করেছে – বিভাসিটি রেড, পার্ল  নাইটফল ব্লু, এবং ক্লিপার ইয়েলো।

হোন্ডা ওয়েভ আলফা ফিচার

Honda Wave Alpha স্কুটারটি একটি সুন্দর ডিজাইনের এবং ইউনিক মডেলের মোপড টাইপ স্কুটার। এটি একটি দুর্দান্ত কমিউটার ক্যাটাগরির বাইক। এটি দেখতে সিম্পল কিন্তু ডিসেন্ট লুকিং। এটির ওভারঅল ফিচারস আপনাকে মুগ্ধ করবে। স্কুটারটির হেডলাইট থেকে শুরু করে পেছনের টেইল লাইট পর্যন্ত সবকিছুই খুবই স্টাইলিশ ও এলিগেন্টভাবে ডিজাইন করা।

স্কুটারটির কনসোল প্যানেলে স্পীডমিটার, ওডোমিটার, ফুয়েল গজ, ওয়ার্নিং লাইট, গিয়ার চেঞ্জ ইন্ডিকেটর প্রভৃতি রয়েছে তবে কোন ক্লক নেই। এটির কন্ট্রোলিং সুইচগুলোর মান যথেষ্ট ভালো তবে এতে কোন পাস বা ফ্লাসিং সুইচ নেই। স্কুটারটির এক্সসেপশনাল স্পোকি হুইল ডিজাইন এবং টিউব টায়ার এটির সৌন্দর্য আরো বাড়িয়ে দিয়েছে। এটিতে স্ট্যান্ডার্ড হ্যান্ডেলবার সহ কালো রঙের গ্র্যাব্রেইল রয়েছে। রিয়ার ভিউ মিররটিও বেশ স্ট্যান্ডার্ড। এছাড়া, সিটিং পজিশন সাধারণ স্কুটারের মতো প্লেইন নয় এবং এতে বাইকটি দেখতে কিছুটা স্পোর্টি দেখায়। স্কুটারটির লং লাস্টিং পারফরম্যান্সের কারণে এটি গ্রাহকদের আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। ওভারঅল হোন্ডা ওয়েভ আলফা ফিচারসে বাইকাররা সন্তুষ্ট।

স্পেশাল ফিচারস

বাইক টাইপ মোপড স্কুটার
কিউবিক ক্যাপাসিটি ১০০ সিসি
ইঞ্জিন ডিসপ্লেসমেন্ট ৯৭ সিসি
সর্বোচ্চ পাওয়ার ৬.৭ বিএইচপি
সর্বোচ্চ টর্ক ৭ এনএম
সর্বোচ্চ মাইলেজ ৬০ কিমি/লি
সর্বোচ্চ স্পিড ৯০ কিমি/আওয়ার
ক্লাচ টাইপ ওয়েট মাল্টিপ্লেট
টায়ার টাইপ টিউব
হুইল টাইপ স্পোকি
ব্রেক টাইপ উভয় চাকায় ড্রাম ব্রেক
স্টার্টিং মেথড কিক এবং ইলেকট্রিক

হোন্ডা ওয়েভ আলফা দাম 

বাংলাদেশে মোটরসাইকেলের দাম বিভিন্ন কারণে উঠা-নামা করে। অফিসিয়াল প্রাইসের পরও দামের রকম ফের হয়। বর্তমানে হোন্ডা ওয়েভ আলফা দাম ১৩৫,০০০/- টাকা। বিভিন্ন শোরুমে আপনি আরো কিছুটা কম দামে পেতে পারেন। বাইকারদের মতে পারফরম্যান্স বিবেচনায় এই দাম যথেষ্ট রিজনেবল।

৩টি কালার কম্বিনেশনে স্কুটারটি বাজারে পাওয়া যাচ্ছে – বিভাসিটি রেড, পার্ল নাইটফল ব্লু, এবং ক্লিপার ইয়েলো।

Honda Wave Alpha রিভিউ অনুযায়ী ইঞ্জিন পারফরম্যান্স 

হোন্ডা ব্র্যান্ডের মোটরসাইকেল বরাবরই দুর্দান্ত ইঞ্জিনের জন্য বিখ্যাত। বাইকারদের হোন্ডা ওয়েভ আলফা রিভিউ অনুযায়ী তাঁরা এই স্কুটারের ইঞ্জিন পারফরম্যান্সে খুবই সন্তুষ্ট। এই মোপড টাইপ স্কুটারটিতে ১০০ সিসি’র ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে। ইঞ্জিন ডিসপ্লেসমেন্ট ৯৭.০ সিসি, এই ইঞ্জিন ৪-স্ট্রোক, এবং সিঙ্গেল-সিলিন্ডারের। এটি ৬.৭ বিএইচপি সর্বোচ্চ পাওয়ার জেনারেট করতে পারে ৮০০০ আরপিএমে এবং ৭ এনএম টর্ক প্রডিউস করতে পারে ৫৫০০ আরপিএমে। এই স্কুটারের ইঞ্জিন ডিসপ্লেসমেন্ট কম হলেও বেশ ভালো স্পীড তুলতে পারে। ইঞ্জিন ট্রান্সমিশন সিস্টেম ম্যানুয়াল তবে স্ট্যান্ডার্ড মোটরসাইকেলের মতো ৪-স্পীড গিয়ারবক্স রয়েছে। এখানে ওয়েট মাল্টি প্লেট ক্লাচ ব্যবহার করা হয়েছে। অটোক্লাচের এই বাইকটিতে গিয়ার চেঞ্জ অথবা ব্রেকিং এর জন্য ক্লাচ নিয়ন্ত্রন করার কোন প্রয়োজনই নেই। এটি কিক এবং ইলেক্ট্রিক দুভাবেই স্টার্ট করা যায়।

             (১) ইঞ্জিন ডিসপ্লেসমেন্ট: ৯৭.০ সিসি

             (২) ইঞ্জিন টাইপ: ৪-স্ট্রোক, সিঙ্গেল-সিলিন্ডার

             (৩) সর্বোচ্চ শক্তি: ৬.৭ বিএইচপি @ ৮০০০ আরপিএম

             (৪) সর্বোচ্চ টর্ক: ৭ এনএম @ ৫০০০ আরপিএম

             (৫) বোর x স্ট্রোক: ৫০ x ৪৯.৫ মিমি

             (৬) কম্প্রেশন রেশিও: ৯.০:১

             (৭) ট্রান্সমিশন সিস্টেম: ম্যানুয়াল

             (৮) ক্লাচ টাইপ: ওয়েট মাল্টি প্লেট

             (৯) স্টার্টিং মেথড: কিক এবং ইলেক্ট্রিক

হোন্ডা ওয়েভ আলফা রিভিউ অনুযায়ী বডি ডাইমেনশন 

এই মোপড টাইপ স্কুটারটির বডি ডাইমেনশন সিম্পল কিন্তু ডিসেন্ট। কম্প্যাক্ট এবং মজবুত বডি স্ট্রাকচার স্কুটারটির লং টাইম সাস্টেইনেবিলিটি নিশ্চিত করে। বাইকারদের Honda Wave Alpha রিভিউ অনুযায়ী তাঁরা এই স্কুটারের বডি ডাইমেনশনে সন্তুষ্ট।

এটি একটি স্ট্যান্ডার্ড ক্যাটাগরির স্কুটার যার দৈর্ঘ্য ১৯০৮ মিমি, প্রস্থ ৬৯৯ মিমি এবং উচ্চতা ১০৭০ মিমি। স্ট্যান্ডার্ড বাইক বিবেচনা করলে বডি ডাইমেনশন সাধারণ মনে হলেও, স্কুটারের স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী এটা নিখুঁত। এটির হুইলবেস ১২৩৪ মিমি এবং গ্রাউন্ড ক্লেয়ারেন্স ১৩৫ মিমি। গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স কিছুটা কম তাই উচু স্পিড-ব্রেকারে তলা ঘসা লাগতে পারে। স্কুটারটি বেশ হালকা যা ৩.৫ লিটার ক্ষমতার জ্বালানী ট্যাঙ্ক সহ টোটাল ওজন ৯৮ কেজি। সিটিং পজিশন বেশ আরামদায়ক এবং সর্বোচ্চ একজন পিলিয়ন এটিতে বসতে পারেন।

             (১) দৈর্ঘ্য: ১৯০৮ মিমি,

             (২) প্রস্থ: ৬৯৯ মিমি

             (৩) উচ্চতা: ১০৭০ মিমি

             (৪) হুইলবেস: ১২৩৪ মিমি

             (৫) গ্রাউন্ড ক্লেয়ারেন্স: ১৩৫ মিমি

             (৬) ওজন: ৯৮ কেজি

             (৭) জ্বালানী ধারণ ক্ষমতা: ৩.৫ লিটার

Honda Wave Alpha রিভিউ অনুযায়ী ব্রেক এবং সাসপেনশন 

ভালো মানের ব্রেক এবং সাসপেনশন বাইকার এবং বাইকের নিরাপত্তার জন্য খুবই জরুরি। হোন্ডা বেশ ভালো মানের সাসপেনশন এবং ব্রেকিং সিস্টেম দিয়ে থাকে। বাইকারদের হোন্ডা ওয়েভ আলফা রিভিউ অনুযায়ী তাঁরা এই স্কুটারের ব্রেক এবং সাসপেনশন সিস্টেমে সন্তুষ্ট।

বেশিরভাগ স্ট্যান্ডার্ড বাইকের মতো, হোন্ডা এই স্কুটারের সামনের চাকার জন্য টেলিস্কোপিক ফর্ক সাসপেনশন এবং পিছনের চাকার জন্য টুইন শক সাসপেনশন ব্যবহার করেছে। স্কুটার হিসাবে, এই সাসপেনশনগুলি গুণমানে সেরা এবং অপটিমাম কমফোর্ট নিশ্চিত করে। ব্রেকিং সিস্টেমে উভয় চাকায় ড্রাম ব্রেক ব্যবহার করা হয়েছে। ব্রেকিং টাইপ মেকানিকাল লিডিং ট্রেইলিং। তবে কিছু বাইকার মনে করেন বাংলাদেশের রাস্তা এবং যানজটের পরিস্থিতি বিবেচনায় একটি ডিস্ক ব্রেক ব্যবহার করা হলে ভালো হতো। বাইকটির ইঞ্জিনের ক্ষমতা বেশী হওয়ায় এটার সামনের চাকায় ডিস্ক ব্রেক থাকলে ভালো হতো।

             (১) সামনের সাসপেনশন: টেলিস্কোপিক ফর্ক

             (২) পেছনের সাসপেনশন: সুইং আর্ম

             (৩) সামনের ব্রেক টাইপ: মেকানিকাল লিডিং ট্রেইলিং

             (৪) পেছনের ব্রেক টাইপ: মেকানিকাল লিডিং ট্রেইলিং

হোন্ডা ওয়েভ আলফা রিভিউ অনুযায়ী হুইল এবং টায়ার 

স্ট্যান্ডার্ড মানের হুইল এবং টায়ার বাইকারের নিরাপত্তার জন্য জরুরি।বাইকারদের Honda Wave Alpha রিভিউ অনুযায়ী তাঁরা এই স্কুটারের হুইল এবং টায়ারের মান নিয়ে সন্তুষ্ট। স্কুটারটির হুইল স্পোক টাইপ এবং টায়ার টিউব টাইপ। যদিও, অ্যালয়ের পরিবর্তে স্পোক হুইলের কারণে স্কুটারটিকে কিছুটা ব্যাকডেটেড মনে হয় তবে দুই চাকার বাকি বৈশিষ্ট্যগুলি খুব ভাল। স্কুটারের সামনের অংশে ১২ ইঞ্চি স্টিল হুইল ৭০/১০০-৪০পি টায়ার সহ একটি ড্রাম ব্রেক এবং পিছনে একটি ১০ ইঞ্চি স্টিল হুইল ৮০/৯০-৫০পি টায়ার সহ ড্রাম ব্রেক ব্যবহার করা হয়েছে। সামনের চাকার মাড-গার্ডটি যথেষ্ট লম্বা, এটি খুব ভালোভাবেই সামনের চাকার ময়লা-কাদা থেকে ইঞ্জিনটিকে রক্ষা করতে পারে।

             (১) সামনের টায়ার সাইজ: ৭০/১০০-৪০পি

             (২) পেছনের টায়ার সাইজ: ৮০/৯০-৫০পি

             (৩) টায়ার টাইপ: টিউব

             (৪) হুইল টাইপ: স্পোক

Honda Wave Alpha রিভিউ অনুযায়ী মাইলেজ এবং স্পীড 

জ্বালানি সাশ্রয়ের ব্যাপারটি এখনকার বাইকাররা ভালো ভাবেই বিবেচনায় রাখেন। মাইলেজ এই স্কুটারটির অন্যতম অ্যাডভান্টেজ। বাইকারদের হোন্ডা ওয়েভ আলফা রিভিউ অনুযায়ী তাঁরা এই স্কুটারের মাইলেজ নিয়ে খুবই সন্তুষ্ট। স্কুটারটির এভারেজ মাইলেজ ৬০ কিঃমিঃ /লি। হাইওয়েতে ৭০ কিলোমিটারের কাছাকাছি মাইলেজ দিয়ে থাকে। ইঞ্জিন ডিসপ্লেসমেন্ট কম হলেও স্কুটারটি যথেষ্ট ভালো স্পীড তুলতে পারে। এটি সর্বোচ্চ ৯০ কিঃমিঃ/আওয়ার স্পীড তুলতে পারে। হোন্ডা ওয়েভ আলফা দাম অনুযায়ী এই মাইলেজ এবং স্পীড খুবই ভালো।

             (১) এভারেজ মাইলেজ: ৬০ কিঃমিঃ/লি

             (২) হাইওয়ে মাইলেজ: ৭০ কিঃমিঃ/লি (প্রায়)

             (৩) সর্বোচ্চ স্পীড: ৯০ কিঃমিঃ/আওয়ার

হোন্ডা ওয়েভ আলফা রিভিউ অনুযায়ী কনসোল প্যানেল এবং ইলেক্ট্রিক ফিচারস 

স্কুটারটির কনসোল প্যানেল এবং ইলেক্ট্রিক ফিচারস ডিজাইন ক্লাসিক। বাইকারদের Honda Wave Alpha রিভিউ অনুযায়ী তাঁরা এই স্কুটারের কনসোল প্যানেল এবং ইলেক্ট্রিক ফিচারসে মোটামুটি সন্তুষ্ট। স্কুটারটির কনসোল প্যানেল এনালগ কিন্তু বেশ কার্যকর এবং প্রয়োজনীয় সকল ইলেক্ট্রিক ফিচারস রয়েছে। স্কুটারটিতে একটি সিলড্ টাইপ ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে, তাই মেইনটেন্যান্সে আলাদা নজর দেবার কোন প্রয়োজনই নেই। হোন্ডা ওয়েভ আলফা ফিচার অনুযায়ী এই কনসোল প্যানেল এবং ইলেক্ট্রিক ফিচারস বেশ ভালোই।

             (১) স্পিডোমিটার: এনালগ

             (২) ওডোমিটার: এনালগ

             (৩) আরএমপি মিটার: এনালগ

             (৪) হ্যান্ডেলের ধরন: কনভেনশনাল

             (৫) ব্যাটারি টাইপ: এমএফ

             (৬) ব্যাটারি ভোল্টেজ: ১২ ভোল্ট ৩.৫ এম্পেয়ার

             (৭) হেড লাইট: হ্যালোজেন

             (৮) টেইল লাইট: হ্যালোজেন

             (৯) ইন্ডিকেটরস: হ্যালোজেন

             (১০) আসনের ধরন: সিঙ্গেল-সিট

             (১১) প্যাসেঞ্জার গ্র্যাব রেল: আছে

             (১২) ইঞ্জিন কিল সুইচ: নেই

Honda Wave Alpha Price in Bangladesh বাংলাদেশে Honda Wave Alpha এর দাম

বাংলাদেশে Honda Wave Alpha এর অফিসিয়াল দাম ৳135,000। আসল মূল্য কম বেশি হতে পারে যা আপনি ডিলার এর কাছ থেকে যাচাই করে নিতে পারেন।

Honda Wave Alpha Pros সুবিধা

  • টেকসই এবং মজবুত স্ট্রাকচার।
  • সীটের নিচে বেশ সুপরিসর কম্পার্টমেন্ট আছে।
  • ব্যাটারি সিলড্ টাইপ, তাই আলাদা ভাবে মেইনটেন্যান্স করার প্রয়োজন নেই।
  • মাইলেজ এবং স্পীড খুবই ভালো
  • কর্ণারিং করা খুবই সহজ।

Honda Wave Alpha Cons অসুবিধা

  • হেডলাইট এসি অপারেটেড, তাই এর আলো স্থির থাকেনা, থ্রটলের সাথে সাথে আলো কমবেশি হয়।
  • অটো-ক্লাচ হবার কারনে, অভ্যস্থ না হলে প্রথমদিকে গিয়ার বদলাতে সমস্যা হতে পারে।
  • ফুয়েল ট্যাঙ্কের ধারন ক্ষমতা কম।
  • বাইকটির ইঞ্জিনের ক্ষমতা বেশী হওয়ায় এটার সামনের চাকায় ডিস্ক ব্রেক থাকলে ভালো হতো।
  • গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স কম, তাই প্রায়ই উচু স্পিড-ব্রেকারে তলা ঘসা লাগে

এক্সপার্ট অপিনিয়ন

6

Out of 10

বাংলাদেশের মানুষ দৈনন্দিন কাজের অন্যতম বাহন হিসেবে মোটরসাইকেল ব্যবহার করেন। তাই হোন্ডা ওয়েভ আলফা তাদের জন্যেই সবচেয়ে ভালো পছন্দ হতে পারে যারা সিটি রাইডিংয়ে দৈনন্দিন চলাচলে ব্যাস্ত থাকেন। দৈনন্দিন ব্যবহারের জন্য এটি খুবই নির্ভরযোগ্য একটি স্কুটার। ভালো মাইলেজের কারণে এটি আপনার অনেক উপকারে আসবে। আর এই স্কুটারটি একটি ইউনিসেক্স কাব হওয়াতে নারী-পুরুষ সকল চালকই এটা ভালোভাবে ব্যবহার করতে পারবেন। তবে হাইওয়ে রোডে এই স্কুটার চালানোতে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে।

বাইক সম্পর্কিত যেকোনো তথ্যের জানার জন্য ভিজিট করুন বাইকস গাইডে। এখানে আপনি বিভিন্ন বাইককের রিভিউ, স্পেসিফিকেশন, ফিচারস এবং আরো বিভিন্ন তথ্য পাবেন। নতুন বা পুরোনো যেকোনো হোন্ডার দাম জানতে হলে চোখ রাখুন দেশের সেরা মোটরবাইক মার্কেটপ্লেস Bikroy.com-এ।

Honda Wave Alpha is a Japanese scooter bike that is assembled in Bangladesh. It is a commuter category moped type scooter. It is famous for its long lasting performance. It is a very reliable scooter for daily use. It is widely popular as a fuel efficient bike. It looks simple but decent looking. Its overall features will impress you. Due to the long lasting performance of the scooter it has been able to gain the trust of the customers.

Honda Wave Alpha Scooter’s decent design and long lasting performance has increased its reliability among the customers. This moped type scooter uses an engine displacement of 97 cc which is a 4-stroke and single-cylinder. It can produce a maximum power of 6.7 bhp at 8000 rpm and a maximum torque of 7.0 Nm at 5500 rpm. The scooter uses a 4 speed manual gear and has a top speed of 90 km per hour. It can cover an average of 60 km per liter of fuel. The scooter is popular among men and women and people of all walks of life due to its lightweight, affordable price and good mileage.

The body dimensions of the scooter are quite compact so it can be easily balanced. The scooter has a backbone type chassis; the suspension system consists of telescopic forks at the front and swing arm type suspension at the rear. Drum type brakes are used on both the wheels.

The scooter is currently priced at 135,000/- taka. You can get it at a slightly lower price in various showrooms. According to bikers this price is quite reasonable considering the performance. Honda Company has launched the scooter in 3 color combinations – Vivacity Red, Pearl Nightfall Blue, and Clipper Yellow.

Honda Wave Alpha Price in Bangladesh Honda Wave Alpha Price in Bangladesh

The official price of Honda Wave Alpha in Bangladesh is ৳135,000. However, you should check the final price of the bike with the dealer.

Honda Wave Alpha Video Review


30 Mar, 2023 - Honda Wave Alpha একটি কমিউটার ক্যাটাগরির মোপড টাইপ স্কুটার। স্কুটারটির হালকা ওজন, সাশ্রয়ী দাম এবং ভালো মাইলেজের কারণে নারী-পুরুষ এবং সকল শ্রেণী-পেশার মানুষদের কাছে এটি জনপ্রিয়।

Honda Wave Alpha সম্পর্কে জিজ্ঞাসা

Honda Wave Alpha কেমন ধরণের বাইক?

Honda Wave Alpha is a Moped bike. 

What is mileage of Honda Wave Alpha?

Honda Wave Alpha has a mileage of 60 Kmpl (Approx)

What is the Top Speed of Honda Wave Alpha?

Honda Wave Alpha has a top speed of 90 Kmph (Approx)

Honda Wave Alpha- কি কি রঙে পাওয়া যাচ্ছে?

Honda Wave Alpha লাল, কালো এবং নীল তিনটি রঙে পাওয়া যাচ্ছে।

Honda Wave Alpha অনলাইনে কীভাবে কিনবো?

Honda Wave Alpha অনলাইন থেকে কিনতে এবং হাউজুয়ে মোটরসাইকেলের দাম জানতে এখনই ভিজিট করুন Bikroy.com এর পেইজে।

Honda Wave Alpha Specifications

Model name Honda Wave Alpha
Type of bikeMoped
Type of engine4 Stroke Single Cylinder
Engine power (cc) 97.0cc
Engine coolingNo Info
Max. Horse power6.7 Bhp @ 8000 RPM
Max torque7 NM @ 5500 RPM
Start methodKick & Electric
Number of gears4
Mileage 60 Kmpl (Approx)
Top speed90 Kmph (Approx)
Front suspensionTelescopic Fork
Rear suspensionSwing Arm
Front brake typeMechanical Leading T
Front brake diameterNo Info
Rear brake typeMechanical Leading T
Rear brake diameterNo Info
Braking systemNo Info
Front tire size70/100-17 40P
Rear tire size80/90-17 50P
Tire typeTubetyre
Overall length1908 mm
Overall height1070 mm
Overall weight98 kg
Wheelbase1234 mm
Overall width699 mm
Ground clearance135 mm
Fuel tank capacityNo Info
Seat heightNo Info
Head lightHalogen
IndicatorsHalogen
Tail lightHalogen
Speedometeranalog
RPM meterAnalog
OdometerAnalog
Seat typeSingle-Seat
Engine kill switchno
Body colorsNo Info
Distributor/dealerNo Info
Features,
Buy Honda Wave Alphabikroy

No bikes found. Browse used section or Explore other models.

Buy Other Bikesbikroy
Bajaj Pulsar 150 SD 100% SUPER FRESH 2023 for Sale

Bajaj Pulsar 150 SD 100% SUPER FRESH 2023

7,965 km
verified MEMBER
verified
Tk 159,000
4 weeks ago
Bajaj Pulsar 150 SD 100% NEW 680km 2023 for Sale

Bajaj Pulsar 150 SD 100% NEW 680km 2023

690 km
verified MEMBER
verified
Tk 165,000
4 weeks ago
TVS Metro Plus . 2020 for Sale

TVS Metro Plus . 2020

22,545 km
verified MEMBER
verified
Tk 76,000
12 minutes ago
Walton Cruize 2011 for Sale

Walton Cruize 2011

55,000 km
MEMBER
Tk 27,000
12 minutes ago
Lifan KP 2019 for Sale

Lifan KP 2019

9,000 km
MEMBER
Tk 3,500
23 minutes ago
+ Post an ad on Bikroy