Bajaj CT110 X Review

Bajaj CT110 X  |  14 Jul, 2022
banner

Bajaj CT110 X হল CT110 লাইনআপের শীর্ষ ভেরিয়েন্ট। এই ভেরিয়েন্টটি একটি ইঞ্জিন পুটিং আউট এবং ম্যাক্স পাওয়ার এবং ম্যাক্স টর্ক সহ আসে। যার ইঞ্জিনের ধরন 4 – স্ট্রোক একক সিলিন্ডার। এই বাইকটি 115 cc ইঞ্জিন দ্বারা চালিত।

CT110 X সর্বোচ্চ শক্তি 8.6 PS @ 7000RPM জেনারেট করে । এটির সর্বোচ্চ টর্ক হল 9.81 NM @ 5000RPM। ট্রান্সমিশন ডিউটি ​​একটি 4 স্পিড গিয়ারবক্স দ্বারা যত্ন নেওয়া হয়। বাজাজ দাবি করেছে যে বাইকটি 45.00 Kmpl (প্রায়) মাইলেজ দেয়।

Bajaj CT110 X ফ্রন্ট সাসপেনশন হল হাইড্রোলিক টেলিস্কোপিক, 125 মিমি ট্রাভেল এবং রিয়ার সাসপেনশন হল স্প্রিং-ইন-স্প্রিং (SNS)।

মূল বৈশিষ্ট্য

বাইকের নাম বাজাজ সিটি১১০এক্স
বাইকের ধরন কমিউটার
ইঞ্জিন ক্ষমতা (সিসি): ১১৫
ব্রেকিং ড্রাম ব্রেক
এবিএস নাই
সর্বোচ্চ শক্তি (হর্স পাওয়ার) ৮.৬ @ ৭০০০ (পিএস @ আরপিএম)
সর্বোচ্চ শক্তি (টর্ক) ৯.৮১ এন এম @ ৫০০০ আরপিএম
স্টার্ট কিক ও ইলেকট্রিক
গিয়ারের সংখ্যা
সামনের টায়ারের সাইজ ২.১৫-১৭
পিছনের টায়ারের আকার ৩.০০-১৭
জ্বালানী ট্যাঙ্কের ধারণ ক্ষমতা ১০.৫ লিটার
মাইলেজ ৪৫ কিলোমিটার/লিটার (আনুমানিক)
টপ স্পিড ৯০ কিলোমিটার/ঘন্টা (আনুমানিক)

পারফর্মেন্স

দুর্দান্ত পিকআপ সহ একটি শক্তিশালী ১১৫সিসি DTS-i ইঞ্জিন এবং মাইলেজের ক্ষেত্রে কোনও কম্প্রমাইজ নেই৷

স্ট্যাবিলিটি

রুক্ষ রাস্তায় ইঞ্জিন সুরক্ষিত রাখতে সার্কুলার বেলি প্যান রয়েছে,যা রাফ টেরাইন দেবে ইঞ্জিন এর সুরক্ষা । সাথে একটি স্থিতিশীল এবং নিরাপদ যাত্রার জন্য শক্তিশালী ক্র্যাশ গার্ড। এবং সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং রাস্তায় শক্ত গ্রিপ করার জন্য সেমি-নবি টায়ার।

ডিজাইন

বাইকটিতে কমফর্ট এর সাথে কর্ণার নেওয়ার জন্য মজবুত এবং স্টাইলিস বেলোস রয়েছে। সাথে এক্সট্রা অসাধারন রাইডিং, আরাম এবং স্টাইলের জন্য রাবার ট্যাংক প্যাড।

কমফর্ট

ডাবল-সেলাই করা এবং মোটা প্যাডেড সিট রাইডার এবং পিলিয়ন উভয়ের জন্যই অবিশ্বাস্য কমফর্ট দিবে, এমনকি খারাপ রাস্তায়ও। সাথে বড় ও ভাড়ি আইটেম ধরে রাখার জন্য মজবুত ক্যারিয়ার রয়েছে। এবং পা রাখার জন্য রয়েছে থার্ড ফুটরেস্ট, যা আপনাকে লং রাইড এ কমফর্টেবল সহজ শিফটিং দিবে।

Available Bajaj CT110 X Colours

Bajaj CT110 X ৩টি রঙে পাওয়া যায়:

  • ম্যাট ওয়াইল্ড গ্রিন,
  • এবোণী রেড- ব্লাক,
  • এবোণী রেড- ব্লু।

এর বিভিন্ন রঙ এর ভেরিয়েন্ট সিমিলার ডিকেলে আসে। যা খুবই স্পর্টি এবং এই সেগমেন্ট এর বাইক এর জন্য রিফ্রেসিং।

বাজাজ CT110 X এর মূল বৈশিষ্ট্য:

Bajaj CT110 X বেশ কয়েকটি অফ-রোড বৈশিষ্ট্য সহ আসে। বাইকের সামনের দিকে একটি বৃত্তাকার হেডলাইট রয়েছে, যা এই বাইকের জন্য একটি রিফ্রেসিং লুক দেয়।

বাইকটি একটি খুব সাধারণ কিন্তু মার্জিত এক্সজস্টও পায়, যা বাইকটিকে একটি সুন্দর লুক দেয়। বাইকটি আধা-অফ-রোড টায়ারও আছে। সাথে বাইকের পিছনে একটি লাগেজ র্যাক রয়েছে, যা দিয়ে আপনি আপনার লাগেজ স্ট্র্যাপ করতে পারেন।

এটি একটি হ্যালোজেন হেডলাইটের সাথে আসে। বৃত্তাকার হেডলাইট বাইকটিকে বেশ স্টাইলিশ করে এবং এটিকে রেট্রো ভিউ দেয়। টেললাইটের এখনও বাজাজ CT110 এর মতো একই ডিজাইন রয়েছে।

Bajaj CT110 X এর সাথে একটি খুব সাধারণ এবং এনালগ ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার আসে। এর ইনস্ট্রুমেন্ট ক্লাস্টারে শুধুমাত্র একটি স্পিডোমিটার, ওডোমিটার, ফুয়েল গেজ এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় ইনডিকেটর অন্তর্ভুক্ত থাকে। বাইকটিতে আরও কয়েকটি গেজ থাকতে পারে, যেমন একটি RPM কাউন্টার এবং একটি গিয়ার ইনডিকেটর পজিশন।

বডি ডিজাইন

বাজাজ CT110 X একটি এভরেজ হাইটেড মোটরসাইকেল। এটির গড় 810 মিমি স্যাডল রয়েছে, কিছুটা অফ-রোড বাইক নির্বিশেষে, এবং 5’4” এর বেশি উচ্চতার যে কেউ আরামে বাইকের উপর একটি পা দুলাতে পারে।

বাইকটির গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স 170mm, যা শহরের যাতায়াতের জন্য যথেষ্ট। বাইকটিতে 10.5 লিটারের একটি ফুয়েল ট্যাঙ্ক রয়েছে, যা খুব বেশি নয়, তবে বাইকের মাইলেজ এর জন্য ক্ষতিপূরণ দেয়। Bajaj CT110 X-এর অন্যান্য বাইকের তুলনায় এভরেজ সাইজড বডি রয়েছে। Bajaj CT110 X-এর উচ্চতা, দৈর্ঘ্য, প্রস্থ এবং ওজন যথাক্রমে 1098mm, 1998mm, 753mm এবং 118kg।

বেশিরভাগ 110cc বাইকের তুলনায় বাইকটি খুব হালকা নয়, তবে এটি উচ্চ গতিতে বাইকটিকে স্থিতিশীল রাখে। এই বাইকটিতে 1285mm এর একটি খুব ছোট হুইলবেসও রয়েছে, যা এটিকে বেশ কমপ্যাক্ট করে কিন্তু এটি কর্ণারে স্টেবলও করে।

ইঞ্জিন এবং ট্রান্সমিশন:

Bajaj CT110 X-এ রয়েছে একটি 4-স্ট্রোক সিঙ্গেল-সিলিন্ডার (stroke single cylinder) এবং 115cc ইঞ্জিন। ইঞ্জিনটি ফুয়েল ইনজেকশন এবং এয়ার-কুলড। ইঞ্জিনটি 7000rpm-এ প্রায় 8.6PS এবং 5000rpm-এ 9.81Nm টর্ক পাম্প করে৷ এই রেঞ্জের অন্যান্য বাইকের তুলনায় শক্তি যথেষ্ট পর্যাপ্ত।

বাইকটির ফুয়েল ইনজেকশন এটিকে যথেষ্ট জ্বালানি সাশ্রয়ী হতে দেয়, যে কারণে বাইকের রেঞ্জ প্রায় 45kmpl হবে বলে আশা করা হচ্ছে। এতে ইলেক্ট্রিক এবং কিক স্টার্ট উভয়ই রয়েছে। Bajaj CT110 X-এ একটি বেসিক ওয়েট মাল্টি-প্লেট ক্লাচ সিস্টেমও রয়েছে। ট্রান্সমিশনের জন্য 4টি গিয়ার রয়েছে, যার মানে ইঞ্জিনটি বেশ শক্তিশালী। কোম্পানি দাবি করে এটির সর্বোচ্চ গতি প্রায় 90kmph।

ব্রেক, সাসপেনশন এবং হুইল:

Bajaj CT110 X ডুয়াল ব্রেক সেটআপ সহ আসে। পিছনের এবং সামনের উভয় ব্রেকই ড্রাম ব্রেক। এটি ম্যানুফেকচারের কিছু অর্থ সঞ্চয় করতে দেয়। তবে সিঙ্গেল ডিস্ক দিয়ে দাম একটু বেশি হলে ভালো হতো। যাইহোক, বাজাজ বাইকটিকে একটি কম্বি ব্রেকিং সিস্টেম (CBS) প্রদানের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে, যা বাইকের ব্রেকিং পারফরম্যান্সকে বেসিক ড্রাম ব্রেকের উপরে রাখে। এটি বাইকের নিরাপত্তাও বাড়ায়।

Bajaj CT110 X সামনে একটি টেলিস্কোপিক ফর্ক সেট আপ এবং পিছনে একটি স্প্রিং-ইন-স্প্রিং টুইন শক সেটআপ সহ আসে৷ অফ-রোড বাম্প এবং ঝাঁকুনি কমানোর জন্য সামগ্রিক সাসপেনশন সেটআপটি কিছুটা নরম হবে বলে আশা করা হচ্ছে। নরম সাসপেনশন রাইডারদের কোণে ঝুঁকতে নিরুৎসাহিত করে।

Bajaj CT110 X-এ রয়েছে অ্যালয় হুইল। এতে 2.75/17 এবং একটি 3.00/17 টায়ার সেটআপ রয়েছে। টায়ারগুলো একটু পাতলা। রাইডারের আরাম ও নিয়ন্ত্রণের জন্য একটু মোটা টায়ার ভালো হতো। যাইহোক, এই ক্যালিবারের একটি বাইকের জন্য, টায়ার পর্যাপ্ত হবে।

টার্গেট অডিয়েন্স:

Bajaj CT110 X এই বাজেটে এডভাঞ্চার প্রিয় লোকেদের জন্য। এই বাইকটি তাদের জন্য দুর্দান্ত যারা আরামদায়ক এবং কিছুটা দুঃসাহসিক গ্রামীণ এবং পাহাড়ী রাস্তা দিয়ে আরামে রাইড করতে চায়। এই বাইকটিও একটি ভাল কমিউটার, তাই আপনি যদি এমন একটি বাইক খুঁজেন যা ট্রাফিকের মধ্যে আটকে থাকার সময় ইউনিক দেখায়, তাহলে এই বাইকটি আপনার জন্য।

প্রতিযোগী:

Bajaj CT110 X এই বিশেষ সেগমেন্টের একটি খুব ইউনিক বাইক। যাইহোক, এই নির্দিষ্ট বাইকের প্রতিযোগীরা হচ্ছে:

  • Honda Livo 110 Drum.
  • সুজুকি হায়াতে।
  • টিভিএস রেডিয়ন।
  • ভিক্টর-আর ক্লাসিক 100।

115cc সেগমেন্টে এই বাইকটি একটি গ্রেট ডিল। এই বাইকটি প্রায় সকল 115cc এর সাথে সহজেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারে।

পরিশেষে

Bajaj CT110 X একটি দুর্দান্ত বাইক। এটি ট্রাফিকের মধ্যে সহজেই ভীর কেটে যাওয়ার জন্য তৈরি করা হয়েছে। যার জন্য Bajaj CT110 X অবশ্যই প্রশংসার দাবি রাখে।

The Bajaj CT110 X is a commuter motorcycle with a few extra features. It has the appearance of an off-road bike, yet the internal components show that it is a commuting motorcycle. This is the first multi-terrain of its kind.

The external features will allow the rider to occasionally take the bike off-road. This type of bike, on the other hand, is more necessary in rural areas, where the roads are more uncertain.

It is a comfortable and reliable motorcycle for your daily commute. Thicker crash guards, a rear baggage carrier, semi-knobby tires, and a raised front mudguard are all available on the CT110X.

On any surface, the tires deliver a firm and secure grip. Its increased ground clearance of 170 mm makes it ideal for tackling roads in Bangladesh. On rough and uneven roads, a wheelbase of 1285 mm will also provide superior stability.

The CT110 X is still powered by a 115cc DTS-i engine that produces 8.6 PS at 7,000rpm and 9.81 Nm of peak torque at 5,000rpm.

The offroad looks give the bike a distinctive road presence that is unmatched by any bike in it segment While the 115 CC engine lacks the power to make it an all-terrain bike, you can’t disagree with the fact that the bike looks extremely good and modern.

While the prior models looked bland and unexciting the new Bajaj CT 100 X is a breath of fresh air in the commuter segments. Its edgy looks may seem a bit too much for some however to right enthusiasts it may seem a little quirky.

The Bajaj CT 100 X features CBS (combined braking system) however the brake misses the initial brake bite as both the front and rear are drum units. The thin tires also don’t enhance braking confidence and the bike lacks concerning ability.

The CT 100 X can be a perfect companion for those who need a no-frills experience and just want a bike to take you to point a and return. We at Bikroy are sure that the upcoming CT 100 X can capture a mass market in Bangladesh. Particularly in the ride-sharing community.

Bajaj CT110 X Price in Bangladesh Bajaj CT110 X Price in Bangladesh

The official price of Bajaj CT110 X in Bangladesh is ৳Upcoming. However, you should check the final price of the bike with the dealer.

সুবিধা

  • আধুনিক ডিজাইন।
  • কম্প্যাক্ট এবং স্থিতিশীল
  • এই সেগমেন্ট এর অন্য বাইকের তুলনায় শক্তিশালী
  • সাসপেনশন সিবিএস।

অসুবিধা

  • ড্রাম ব্রেক।
  • ইনস্ট্রুমেন্ট ক্লাস্টারে পর্যাপ্ত ফিচারস নেই।
  • লো পাওয়ারড হেডলাইট।

Bajaj CT110 X নতুন বৈশিষ্ট

  • বাইকটিতে কম্ফোর্ট টেবল সিঙ্গেল সিট ব্যবহার করা হয়েছে।
  • বাইকটিতে এনালগ স্পীডোমিটার দেওয়া হয়েছে।
  • ১১৫ সিসি হিসেবে বাইকটির ডিজাইন অনেক মুসকুলার।
  • বাইকটির সামনে হাইড্রোলিক, টেলিস্কোপিক ১২৫ এম এম ট্রাভেল এবং পেছনে স্প্রিং ইন স্প্রিং সাসপেনশন ব্যবহার করা হয়েছে

এক্সপার্ট অপিনিয়ন

7.0

Out of 10

Bajaj CT110 X বাংলাদেশে লঞ্চ করা হয় নি। তবে ইন্ডিয়াতে লঞ্চ হওয়ার পর সবচেয়ে কম দামের এবং মাইলেজের মাস্টার হিসেবে পরিচিত এই Bajaj CT110 X বাইকটি।  ডাবল-সেলাই করা এবং মোটা প্যাডেড সিট রাইডার এবং পিলিয়ন উভয়ের জন্যই অবিশ্বাস্য কমফর্ট দিবে, এমনকি খারাপ রাস্তায়ও। সাথে বড় ও ভাড়ি আইটেম ধরে রাখার জন্য মজবুত ক্যারিয়ার রয়েছে। এবং পা রাখার জন্য রয়েছে থার্ড ফুটরেস্ট, যা আপনাকে লং রাইড এ কমফর্টেবল সহজ শিফটিং দিবে।

Bajaj CT110 X Video Review

Bajaj CT110 X-সম্পর্কে জিজ্ঞাসা

Bajaj CT110 X কাদের জন্য?

বাইকটি যারা বাজেটের মধ্যে কমিউটার বাইক পছন্দ করেন, তাদের জন্য পারফেক্ট।

Bajaj CT110 X price in Bangladesh?

বাংলাদেশের বাজারে এখনো Bajaj CT110 X অ্যাভেইলেবল হয়নি।

Which colors are available of Bajaj CT110 X?

Bajaj CT110 X ৩টি রঙে পাওয়া যায় ম্যাট ওয়াইল্ড গ্রিন, এবোণী রেড- ব্লাক, এবোণী রেড-ব্লু।

Bajaj CT110x এর মাইলেজ কত?

বাজাজ সিটি এর মাইলেজ প্রায় ৪৫ কিমিঃ পার লিটার।

Bajaj CT110 X বাইকে কি ধরনের ইঞ্জিন স্টার্ট আছে?

Bajaj CT110 X বাইকে ইলেকট্রিক এবং কিক উভয় ধরনের ইঞ্জিন স্টার্ট অপশন আছে।

Bajaj CT110 X স্পেসিফিকেশন

বাইকের নাম

Bajaj CT110 X

বাইকের ধরন

কমিউটার

ইঞ্জিনের ধরন

4 – Stroke Single Cylinder

ইঞ্জিন ক্ষমতা (সিসি)

115

ইঞ্জিন কুলিং

Air Cooled

সর্বোচ্চ শক্তি (হর্স পাওয়ার)

8.6 @ 7000 (Ps @ RPM)

সর্বোচ্চ টর্ক

9.81 NM @ 5000 RPM

স্টার্ট

Kick & Electric

গিয়ারের সংখ্যা

4

মাইলেজ

45 কিলোমিটার/লিটার (আনুমানিক)

টপ স্পিড

90 কিলোমিটার/ঘন্টা (আনুমানিক)

সামনের সাসপেনশন

Hydraulic Telescopic, 125 Mm Travel

পেছনের সাসপেনশন

Spring-In-Spring (SNS)

সামনের ব্রেক টাইপ

Drum Brake

ফ্রন্ট ব্রেক ডায়ামিটার

130 মিলিমিটার

অ্যান্টি-লক ব্রেকিং সিস্টেম (এবিএস)

No

পেছনের ব্রেক টাইপ

Drum Brake

পেছনের ব্রেক ডায়ামিটার

N/A

ব্রেকিং সিস্টেম

CBS Braking

সামনের টায়ারের সাইজ

2.75-17

টায়ারের ধরন

Tube tyre

পিছনের টায়ারের সাইজ

3.00-17

সামগ্রিক দৈর্ঘ্য

1998 মিলিমিটার

উচ্চতা

1098 মিলিমিটার

ওজন

118 কেজি

হুইলবেস

1285 মিলিমিটার

সামগ্রিক প্রস্থ

753 মিলিমিটার

গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স

170 মিলিমিটার

জ্বালানী ট্যাঙ্কের ধারণ ক্ষমতা

10.5 লিটার

আসন উচ্চতা

810 মিলিমিটার

হেড লাইট

Halogen

ইন্ডিকেটরস

Halogen

পেছনের লাইট

Halogen

স্পিডোমিটার

Analog

আরপিএম মিটার

Analog

ওডোমিটার

Analog

আসনের ধরন

Single-Seat

ইঞ্জিন কিল সুইচ

Yes

Buy New Bajaj CT 100
Bajaj CT 100 . 2022 for Sale

Bajaj CT 100 . 2022

0 km
verified MEMBER
Tk 107,000
20 hours ago
Bajaj CT 100 102 es rate 2022 for Sale

Bajaj CT 100 102 es rate 2022

0 km
verified MEMBER
Tk 107,000
6 days ago
Bajaj CT 100 0 2022 for Sale

Bajaj CT 100 0 2022

0 km
verified MEMBER
Tk 101,500
3 weeks ago
Bajaj CT 100 2022 for Sale

Bajaj CT 100 2022

0 km
verified MEMBER
Tk 101,500
3 weeks ago
Bajaj CT 100 2022 for Sale

Bajaj CT 100 2022

0 km
verified MEMBER
Tk 101,500
4 weeks ago
Buy Used Bajaj CT 100
Bajaj CT 100 ব্যাবহৃত 2009 for Sale

Bajaj CT 100 ব্যাবহৃত 2009

17,347 km
MEMBER
Tk 62,000
21 minutes ago
Bajaj CT 100 . 2015 for Sale

Bajaj CT 100 . 2015

29,000 km
MEMBER
Tk 51,000
4 hours ago
Bajaj CT 100 . 2022 for Sale

Bajaj CT 100 . 2022

1,200 km
MEMBER
Tk 80,000
14 hours ago
Bajaj CT 100 . 2015 for Sale

Bajaj CT 100 . 2015

80,000 km
MEMBER
Tk 50,000
18 hours ago
Bajaj CT 100 . 2012 for Sale

Bajaj CT 100 . 2012

96,000 km
MEMBER
Tk 70,000
18 hours ago
+ Post an ad on Bikroy