Bajaj Pulsar NS 160 রিভিউ, দাম, ফিচার এবং স্পেসিফিকেশন

15 Jan, 2024
Bajaj Pulsar NS 160 রিভিউ, দাম, ফিচার এবং স্পেসিফিকেশন

Bajaj Pulsar NS 160 হলো বাজাজের একটি শক্তিশালী নেকেড স্পোর্টস টাইপ মোটরসাইকেল। এটি Bajaj ব্র্যান্ডের অন্যতম সেরা এবং গর্জিয়াস ডিজাইনের মোটরসাইকেল। প্রত্যাশিত দামের মধ্যে এরকম স্টাইলিশ, হাই-পারফর্মিং এবং লং-লাস্টিং পারফরম্যান্সের বাইক বাজারে এনে বাজাজ প্রচুর গ্রাহক আকর্ষণ করেছে। বাইকটিতে টুইন স্পার্ক ইগনিশন ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে, যা ইঞ্জিনের পারফরম্যান্স এবং ফুয়েল ইফিসিয়েন্সি বাড়ায়। এই ব্লগে Bajaj Pulsar NS 160 রিভিউ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

বাজাজ বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় মোটরসাইকেল ব্র্যান্ড। সাশ্রয়ী মূল্যে ভাল মানের পণ্য প্রদানের কারণে এটি প্রচুর গ্রাহক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। বাজাজ ইয়াং জেনারেশনকে টার্গেট করে বাজাজ পালসার এনএস ১৬০ বাইকটি বাজারে এনেছে। বাইকটির স্মার্ট স্পোর্টি ডিজাইন, মাস্কুলার শেপ এবং ওভারঅল পারফরম্যান্স এটিকে গ্রাহক জনপ্রিয়তার শীর্ষে রেখেছে। এই ব্লগে বাজাজ পালসার এনএস ১৬০ রিভিউ, স্পেকস, ফিচার, ভালো-মন্দ দিক সহ আরো বেশ কিছু বিষয়ে আলোচনা করা হয়েছে। দেশে বাইকটির অন্যতম প্রতিযোগী হলো হোন্ডা সিবি হর্নেট ১৬০আর এবং টিভিএস অ্যাপাচি আরটিয়ার ১৬০ ৪ভি

Bajaj Pulsar NS 160 রিভিউ

পালসার এনএস ১৬০ বাইকটি, ১৬০ সিসি সেগমেন্টের মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় এবং বহুল বিক্রিত একটি বাইক। এটি একটি এলিগেন্ট লুকিং নেকেড-স্পোর্টস বাইক। বাইকটিতে ১৬০ সিসির পাওয়ারফুল লিকুইড কুল্ড ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে। বাইকটি থেকে আপনি প্রায় ৪০ কিমি/লিটার এভারেজ মাইলেজ এবং প্রায় ১৩৫ কিমি/আওয়ার টপ স্পিড পেতে পারেন। এটি একটি দুর্দান্ত স্পিডি বাইক, তাই আপনি রোমাঞ্চকর রাইডিং এক্সপেরিয়েন্স পাবেন। বাজাজ পালসার এনএস ১৬০ দাম সাপেক্ষে মাইলেজ এবং স্পিড খুবই সন্তোষজনক।

বাইকটি থেকে স্ট্যান্ডার্ড পারফরম্যান্স পাওয়ার জন্য টুইন স্পার্ক ডিটিএস-আই (DTS-i) ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়াও টুইন-ডিস্ক ব্রেকিং সিস্টেম এবং ফুয়েল ইফিসিয়েন্সি প্রযুক্তিও এটিতে ব্যবহার করা হয়েছে। বাইকটির ফুয়েল ট্যাংক ক্যাপাসিটি বেশ ভালো। সকল লাইটিং সিস্টেম বেশ ভালো কার্যকর। এটির ইলেকট্রিক্যাল কনসোল সম্পূর্ণ ডিজিটাল। বাইকটি কিক এবং ইলেকট্রিক উভয় ভাবেই স্টার্ট করা যায়। এটিতে ইঞ্জিন কিল সুইচও রয়েছে।

ফিচার এবং ডিজাইন

বাইকটি আধুনিক ফিচার সমৃদ্ধ একটি নেকেড-স্পোর্টস বাইক। বাইকটির প্রধান বৈশিষ্ট্যগুলো হল এটির অসাধারণ ডিজাইন এবং রোমাঞ্চকর স্পিড। বাইকটির মাস্কুলার ফুয়েল ট্যাংক, ডিসেন্ট ডিজাইনের স্প্লিট সিট এবং স্টাইলিশ পিলিয়ন গ্র্যাব-রেল এটিকে একটি এগ্রেসিভ লুক এনে দিয়েছে। এটির থ্রি-পার্ট হ্যান্ডেলবার, রিয়ারভিউ মিরর এবং হেডলাইট ডিজাইন একটি স্টাইলিস ভাইব এনে দিয়েছে। বাইকটির পেরিমিটার স্টিল চেসিস, এক্সজস্ট পাইপ এবং গ্লসি ডিক্যালস ডিজাইন এটির স্পোর্টি লুক আরো বাড়িয়ে দিয়েছে। বাইকটির ক্লাসি স্পোর্টি লুকের কারণে, এটি নিঃসন্দেহে দেশের সেরা স্ট্রিট ফাইটার মোটরসাইকেলগুলোর মধ্যে একটি হিসাবে বিবেচিত হয়।

ইঞ্জিন পারফরম্যান্স

বাইকটিতে ১৬০.৩ সিসি ডিসপ্লেসমেন্ট ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে। এই ইঞ্জিন লিকুইড কুল্ড, সিঙ্গেল সিলিন্ডার, এবং ৪-স্ট্রোক ফিচার বিশিষ্ট। এছাড়াও ইঞ্জিনে টুইন স্পার্ক ২-ভালভ ডিটিএস-আই ইগনিশন সিস্টেম ইনস্টল করা হয়েছে; যা জ্বালানি সাশ্রয় এবং ইঞ্জিন ইফিসিয়েন্সি নিশ্চিত করে। এই ইঞ্জিন ৮৫০০ আরপিএমে ১৫.৩ বিএইচপি সর্বোচ্চ পাওয়ার এবং ৬৫০০ আরপিএমে ১৪.৬ এনএম সর্বোচ্চ টর্ক জেনারেট করতে পারে।

ইঞ্জিনের ট্রান্সমিশন সিস্টেম ম্যানুয়াল, এটি ৫-স্পিড গিয়ারবক্স এবং মাল্টিপ্লেট ওয়েট ক্লাচ সিস্টেম নিয়ে গঠিত। ইঞ্জিনের বোর এবং স্ট্রোক যথাক্রমে ৭২ মিমি এবং ৪৯ মিমি। বোর, স্ট্রোকের চেয়ে বেশি হওয়ায় মুহূর্তেই দ্রুত স্পিড তুলতে পারে। বাইকারদের রিভিউ অনুযায়ী তাঁরা এই বাইকের ইঞ্জিন পারফরম্যান্সে খুবই সন্তুষ্ট।

রিভিউ অনুযায়ী বডি ডাইমেনশন

বাইকটির দৈর্ঘ্য, প্রস্থ এবং উচ্চতা যথাক্রমে ২০১২ মিমি, ৮০৩.৫ মিমি, এবং ১০৬০ মিমি। এছাড়াও, বাইকটিতে ১৩৬৩ মিমি এর হুইলবেস রয়েছে, যা এটিকে টপ স্পিডে এবং কর্ণারিং-এ স্ট্যাবল রাখে। বাইকটির গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স ১৭৬ মিমি, যা বাংলাদেশের রাস্তার যেকোনো স্পিড-ব্রেকার অতিক্রম করার জন্য যথেষ্ট। সিটিং পজিশনের উচ্চতা ১০৬০ মিমি। নেকেড-স্পোর্টস টাইপ বাইকের সিটিং পজিশনের উচ্চতা কিছুটা বেশি হয়ে থাকে। প্রিমিয়াম কোয়ালিটির প্যাডেড স্প্লিট-সিট কম্ফোর্টেবল রাইডিং নিশ্চিত করে।

বাইকটির জ্বালানি ট্যাংকের ধারণ ক্ষমতা বেশ ভালো, ১২ লিটার। এটি বেশ ভারি বাইক, টোটাল ওজন ১৪২ কেজি, যা এটিকে উচ্চ গতিতে স্ট্যাবল রাখতে সাহায্য করে। পেরিমিটার স্টিল টাইপ চেসিস ফ্রেম বাইকের সম্পূর্ণ স্ট্রাকচার ধরে রেখেছে। বাইকটি একজন রাইডারের জন্য কম্ফোর্টেবল, প্যাসেঞ্জার গ্র্যাব-রেল থাকলেও পিলিয়নকে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। বাইকারদের রিভিউ অনুযায়ী তাঁরা এই বাইকের বডি ডাইমেনশন মেজারমেন্টে খুবই সন্তুষ্ট।

ব্রেক এবং সাসপেনশন সিস্টেম

অন্যান্য আকর্ষণীয় ফিচারের মতো এই বাইকের ব্রেকিং এবং সাসপেনশনগুলোও অসাধারণ। বাইকটিতে ডাবল ডিস্ক ব্রেকিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে। সামনের চাকায় ২৪০ মিমি-এর সিঙ্গেল ডিস্ক ব্রেক এবং পিছনের চাকায় ১৩০ মিমি-এর ডিস্ক ব্রেক ব্যবহার করা হয়েছে। এই ব্রেকিং সিস্টেম সিটি-হাইওয়ে উভয় রোডে বেশ ভালো কার্যকর।

বাইকটির সামনের দিকে টেলিস্কোপিক সাসপেনশন এবং পিছনের দিকে মনো-শক সাসপেনশন ব্যবহার করা হয়েছে। নেকেড-স্পোর্টস টাইপ বাইক হিসেবে এটির ব্রেক এবং সাসপেনশন সিস্টেম খুব উন্নত এবং নিরাপদ। বাজাজ পালসার এনএস ১৬০ দাম সাপেক্ষে এই বাইকের সাসপেনশন এবং ব্রেকিং সিস্টেমে বাইকাররা খুবই সন্তুষ্ট।

হুইল এবং টায়ার

বাইকটির টায়ার টিউবলেস এবং হুইল অ্যালয় ধরণের। সামনের চাকায় ৯০/৯০ – ১৭ সেকশন টায়ার এবং পিছনের চাকায় ১২০/৭০ – ১৭ সেকশন টায়ার ব্যবহার করা হয়েছে। উভয় হুইলের সাইজ ১৭” ইঞ্চি। এই হুইল এবং টায়ার ভেজা এবং কর্দমাক্ত রাস্তাতেও বেশ ভালো কাজ করে। রিভিউ অনুযায়ী বাইকাররা এই বাইকের হুইল এবং টায়ারের মান নিয়ে খুবই সন্তুষ্ট।

মাইলেজ এবং স্পিড

বাইকটিতে ডিটিএস-আই টুইন স্পার্ক ইগনিশন সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে, যা জ্বালানি সাশ্রয় এবং ইঞ্জিন ইফিসিয়েন্সি বাড়ায়। বাইকটি থেকে আপনি প্রায় ৪০ কিমি/লিটার এভারেজ মাইলেজ এবং প্রায় ১৩৫ কিমি/আওয়ার টপ স্পিড পেতে পারেন। নেকেড-স্পোর্টস টাইপ বাইক হওয়ায় এটির স্পিড এবং অ্যাক্সিলারেশন বেশ ভালো। রিভিউ অনুযায়ী বাইকাররা এই বাইকের মাইলেজ এবং স্পিড নিয়ে খুবই সন্তুষ্ট।

কনসোল প্যানেল এবং ইলেকট্রিক্যাল ফিচার

বাইকটির ইনস্ট্রুমেন্ট কনসোল সম্পূর্ণ ডিজিটাল। এখানে ওডোমিটার, স্পিডোমিটার, এবং আরপিএম মিটার রয়েছে। এছাড়াও এখানে ট্যাকোমিটার, ফুয়েল গেজ এবং ইন্ডিকেটর লাইট সিগন্যাল রয়েছে।

বাইকটিতে ১২ ভোল্টের এমএফ টাইপ পাওয়ারফুল ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে। এই ব্যাটারি সকল ইলেকট্রিক্যাল সিস্টেম মেইনটেইন করতে পারে। বাইকটির হেডলাইটটি ৫৫ ওয়াটের হ্যালোজেন টাইপ। এটির সকল ইনডিকেটর হ্যালোজেন টাইপ এবং টেইল লাইটটি এলইডি টাইপ। ওভারঅল Bajaj Pulsar NS 160 রিভিউ অনুযায়ী কনসোল প্যানেল এবং ইলেকট্রিক্যাল ফিচারে বাইকাররা বেশ সন্তুষ্ট।

Bajaj Pulsar NS 160 Price in Bangladesh বাংলাদেশে Bajaj Pulsar NS 160 এর দাম

বাংলাদেশে Bajaj Pulsar NS 160 এর অফিসিয়াল দাম ৳199,800। আসল মূল্য কম বেশি হতে পারে যা আপনি ডিলার এর কাছ থেকে যাচাই করে নিতে পারেন।

Bikroy এর বিগত ৩ মাসের লিস্টিং থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী ব্যবহৃত used Bajaj Pulsar Ns 2023 এর দাম BDT 165,000.

Bajaj Pulsar NS 160 Pros সুবিধা

  • স্মার্ট ডিজাইন এবং পাওয়ারফুল ইঞ্জিন
  • ডিজিটাল টুইন স্পার্ক ইগনিশন (DTS-i) প্রযুক্তি
  • ডুয়েল ডিস্ক ব্রেক
  • দুর্দান্ত স্পিড
  • ইঞ্জিন কিল সুইচ

Bajaj Pulsar NS 160 Cons অসুবিধা

  • সিটিং পজিশনের উচ্চতা বেশি
  • হ্যালোজেন হেডলাইট
  • মাইলেজ আরো একটু বেশি হলে ভালো হতো

এক্সপার্ট অপিনিয়ন

8

Out of 10

Bajaj Pulsar NS 160 একটি এলিগেন্ট ডিজাইনের নেকেড-স্পোর্টস টাইপ বাইক। বাইকটি ইয়াং জেনারেশন এবং স্পিড লাভারদের টার্গেট করে বাজারে আনা হয়েছে। লং-লাস্টিং পারফরম্যান্স এবং রোমাঞ্চকর রাইডিং এক্সপেরিয়েন্সের সমন্বয়ে এটি দুর্দান্ত একটি বাইক। যাঁরা গর্জিয়াস ডিজাইনের স্পিডি বাইক চান সাথে লং-লাস্টিং পারফরম্যান্স, তাহলে এই বাইকটি তাদের জন্য বেস্ট অপশন।

 

Bajaj Pulsar NS 160 is a powerful naked sports-type motorcycle from Bajaj. It is one of the best and most gorgeously designed motorcycles of the Bajaj brand. Bajaj has attracted a lot of customers by bringing such stylish, high-performing, and long-lasting performance bikes to the market at an expected price. This bike uses a twin-spark ignition engine, which enhances engine performance and fuel efficiency. Bajaj has launched this bike targeting the young generation. This bike’s smart sporty design, muscular shape, and overall performance have made it a top customer favorite. This bike is one of the most popular and best-selling bikes in the 160 cc segment.

This bike uses a powerful liquid-cooled engine of 160 cc. You can get an average mileage of around 40 km/liter and a top speed of around 135 km/hour from this bike. It is a great speedy bike, so you will get a thrilling riding experience. Twin spark DTS-i (DTS-i) engine is used to get standard performance from this bike. It also gets a twin-disc braking system and fuel efficiency technology. The fuel tank capacity of this bike is quite good. All lighting systems are very effective. Its electrical console is fully digital. This bike can be started both by kick and electric. It also has an engine kill switch.

This bike is a naked-sports bike packed with modern features. The main features of this bike are its amazing design and thrilling speed. This bike’s muscular fuel tank, descent design split seat, and stylish pillion grab-rail give it an aggressive look. Its three-part handlebar, rearview mirror, and headlight design give it a stylish vibe. This bike’s perimeter steel chassis, exhaust pipe, and glossy decals design add to its sporty look. Because of the classy sporty look of this bike, it is undoubtedly considered one of the best street fighter motorcycles in the country.

It is a great bike that combines long-lasting performance and a thrilling riding experience. For those who want a speedy bike with a gorgeous design and long-lasting performance, then this bike is the best option for them.

Bajaj Pulsar NS 160 Price in Bangladesh Bajaj Pulsar NS 160 Price in Bangladesh

The official price of Bajaj Pulsar NS 160 in Bangladesh is ৳199,800. However, you should check the final price of the bike with the dealer.

As per the Bikroy's 3 months price data, the avg. price of used Bajaj Pulsar Ns 2023 is BDT 165,000.

Bajaj Pulsar NS 160 Video Review


15 Jan, 2024 - Bajaj Pulsar NS 160 হলো স্টাইলিশ নেকেড স্পোর্টস টাইপ মোটরসাইকেল। এই ব্লগে Bajaj Pulsar NS 160 রিভিউ, স্পেসিফিকেশন, ফিচার সহ আরো বেশ কিছু বিষয়ে আলোচনা করা হয়েছে।

Bajaj Pulsar NS 160 সম্পর্কে কিছু জিজ্ঞাসা

Bajaj Pulsar NS 160 কি ধরণের বাইক ?

এটি একটি এলিগেন্ট ডিজাইনের নেকেড-স্পোর্টস টাইপ বাইক।

বাইকটিতে কি ধরণের ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে ?

লিকুইড-কুল্ড, সিঙ্গেল-সিলিন্ডার, ৪-স্ট্রোক, ২-ভালভ এবং টুইন স্পার্ক ডিটিএস-আই ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে।

বাইকটির এভারেজ মাইলেজ এবং স্পিড কত ?

প্রায় ৪০ কিমি/লিটার মাইলেজ এবং প্রায় ১৩৫ কিমি/আওয়ার টপ স্পিড।

বাইকটির ব্রেকিং সিস্টেম কেমন ?

ডুয়েল ডিস্ক সেটআপ।

বাইকটির গিয়ার এবং ট্রান্সমিশন কি ধরণের ?

ট্রান্সমিশন সিস্টেম ম্যানুয়াল, এখানে ৫-স্পিড গিয়ারবক্স সহ মাল্টিপ্লেট ওয়েট ক্লাচ সিস্টেম।

Bajaj Pulsar NS 160 Specifications

Model name Bajaj Pulsar NS 160
Type of bikeNaked Sports
Type of engineOil Cooled, 4-Stroke, Single Cylinder
Engine power (cc) 160.3cc
Engine coolingLiquid Cooled
Max. Horse power15.3 Bhp @ 8500 RPM
Max torque14.6 NM @ 6500 RPM
Start methodKick & Electric
Number of gears5
Mileage 40 Kmpl (Approx)
Top speed135 Kmph (Approx)
Front suspensionTelescopic
Rear suspensionMonoshock
Front brake typeSingle Disc
Front brake diameter240 mm
Rear brake typeDrum Brake
Rear brake diameterNo Info
Braking systemNo Info
Front tire size90/90–17
Rear tire size120/70-17
Tire typeTubeless
Overall length2012 mm
Overall height1060 mm
Overall weight142 Kg
Wheelbase1363 mm
Overall width803.5 mm
Ground clearance176 mm
Fuel tank capacity12 Liters
Seat heightNo Info
Head light55W/55W Ha
IndicatorsHalogen
Tail lightLED
Speedometerdigital
RPM meterDigital
OdometerDigital
Seat typeSplit-Seat
Engine kill switchyes
Body colorsNo Info
Distributor/dealerUttara Motors Limited
Features,
Buy Bajaj Pulsar NS 160bikroy

No bikes found. Browse used section or Explore other models.

Buy Other Bikesbikroy
TVS Apache RTR . 2017 for Sale

TVS Apache RTR . 2017

80,000 km
MEMBER
Tk 95,000
1 hour ago
TVS Apache RTR 2019 for Sale

TVS Apache RTR 2019

40,000 km
MEMBER
Tk 145,000
2 days ago
Walton Cruize 2011 for Sale

Walton Cruize 2011

55,000 km
MEMBER
Tk 27,000
1 day ago
Runner Turbo 125 2019 for Sale

Runner Turbo 125 2019

8,000 km
MEMBER
Tk 49,999
5 hours ago
Yamaha Gladiator . 2015 for Sale

Yamaha Gladiator . 2015

41,225 km
MEMBER
Tk 55,000
5 days ago
+ Post an ad on Bikroy